এশিয়া কাপ হচ্ছে না শ্রীলংকায়

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৩ মাস আগে

গোতাবায়া রাজাপাকসের পদত্যাগ ও রনিল বিক্রমাসিংহকে নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পরও শ্রীলংকায় অস্থির অবস্থা স্বাভাবিক হচ্ছে না।

পেট্রলের অভাবে গাড়ি নিয়ে লংকান ক্রিকেটাররা মাঠে অনুশীলনেই যেতে পারছেন না।

এমন পরিস্থিতিতে এশিয়া কাপ আয়োজন থেকে সরে দাঁড়িয়েছে শ্রীলংকা। শুধু এ মেগা আসরটিই নয়; অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সংকটে পড়ে লংকা প্রিমিয়ার লিগও (এলপিএল) স্থগিত করে দিয়েছে শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)।

তবে আয়োজক হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত বা অন্য কোনো দেশে টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে চায় লংকানরা।

এশিয়া কাপ আয়োজন করার মতো অবস্থায় নেই জানিয়ে বুধবার আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতি এসএলসি।

এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলকে (এসিসি) নিজেদের অপারগতার বিষয়টি জানিয়েছে এসএলসি।

এসিসির একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডের বরাতে এসিসি জানিয়েছেন, ‘বর্তমান রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কারণে বিশেষ করে বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ে উদ্বেগ চলাকালীন ছয় দেশের বড় ইভেন্ট এশিয়া কাপ আয়োজন করা অসম্ভব শ্রীলংকার।’

নতুন ভেন্যু খোঁজার বিষয়ে শ্রীলংকা বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাত চূড়ান্ত বিকল্প ভেন্যু নয়। ভারতের পাশাপাশি অন্য কোনো দেশেও এই টুর্নামেন্ট খেলা হতে পারে। কারণ এসিসি এবং শ্রীলংকা ক্রিকেটকে প্রথমে এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে টুর্নামেন্ট আয়োজনের চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য কথা বলতে হবে।’

২০২২ সালের এশিয়া কাপ হবে টি-টোয়েন্টি সংস্করণে। ২৭ আগস্ট থেকে ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলার কথা মূল পর্ব। এর আগে ২০ থেকে ২৬ আগস্ট হওয়ার কথা বাছাইপর্ব।

মূলপর্বে সরাসরি খেলবে পাঁচ টেস্ট খেলুড়ে দেশ বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলংকা। বাছাই পর্বে হংকং, সিঙ্গাপুর, কুয়েত ও আমিরাত থেকে একটি দল জায়গা করে নেবে মূল লড়াইয়ে।

তথ্যসূত্র: এনডিটিভি