কুমিল্লার আদর্শ সদর : প্রেমিকের হাত-পা বেঁধে শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিল প্রেমিকা 

মূল দুই আসামিকে গ্রেফতার
স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

ফোনে ডেকে নিয়ে আরাফাত ইসলাম রবিন নামে এক যুবককে হাত-পা বেঁধে শরীরে পেট্রল ঢেলে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার বড়দৈল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

রবিন পার্শ্ববর্তী আমতলী এলাকার রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী রেজাউল করিমের ছেলে। পেট্রলের আগুনে রবিনের শরীরের প্রায় ৭০ শতাংশ পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় জড়িত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার বড়দৈল গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার গাড়িচালক শফিক মিয়ার মেয়ে তাসফিয়া আক্তার রুমা এবং তার ভাই মো. অনিক।

বৃহস্পতিবার রাতে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহান সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এদিকে এ ঘটনায় হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে কুমিল্লার কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী রবিনের বাবা রেজাউল করিম।

জানা গেছে, রবিনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বড়দৈল গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার গাড়িচালক শফিক মিয়ার মেয়ে তাসফিয়া আক্তার রুমার। বুধবার রাতে তাকে ফোন করে ডেকে আনে তাসফিয়া। রবিন বড়দৈল এলাকায় গেলে সেখানে শফিক মিয়ার ছেলে অনিক এবং রবিনের প্রেমিকা তাসফিয়া আক্তার রুমা তার হাত-পা বেঁধে শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় রবিনের চিৎকার স্থানীয়রা এগিয়ে এলে পালিয়ে যায় অনিক ও রুমা। স্থানীয়রা রবিনের শরীরের জ্বলন্ত আগুন নিভিয়ে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। রবিন বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহান সরকার বলেন, এ ঘটনায় মূল দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তদন্তের পর এ ঘটনার রহস্য জানা যাবে।