কুমিল্লার আমড়াতলীতে স্কুলের সেপটিক ট্যাংকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৪ সপ্তাহ আগে

এম হাসান ।।

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার আমড়াতলী ইউনিয়নে একটি বিদ্যালয়ে অরক্ষিত সেপটিক ট্যাংকে পড়ে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
আজ বৃহস্পতিবার ( ২০ মার্চ) দুপুর ২টায় উপজেলার উত্তর রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়েএ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত শিশু আদর্শ সদর উপজেলার আমড়াতলী ইউনিয়নের প্রবাসী মোহাম্মদ রিজানের কন্যা মোসাম্মৎ নুর (৩)।
বিষয়টি নিশ্চিত করেন কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই আবদুর রহিম।

পরিবার ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানা যায়, রসুলপুর বিদ্যালয়টির সেপটিক ট্যাংক নির্মাণ কাজ দুই মাস আগে শুরু করলেও, নানা অজুহাতে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজ শেষ করেনি । দীর্ঘদিন ধরে অর্ধেক কাজ করে ফেলে রাখায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

এই  সেপটিক ট্যাংকে পড়েই নিহত হয় শিশুটি

রসুলপুর এলাকার বাসিন্দা শামীম আহমেদ বলেন, কোনো নিরাপত্তা বেষ্টনি ছাড়াই ফেলে রাখা হয় । সেপটিক ট্যাংকের জন্য করে রাখা গর্তটি  বৃষ্টির পানিতে পুরো হয়ে যাওয়ায় ওই শিশুটি গর্তে পড়ে যায় । পরে দুপুর ২টার দিকে নুরের লাশ ভেসে উঠে ওই গর্তের পানিতে।

উত্তর রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোহাম্মদ স্বপন আহমেদ বলেন,আমরা বারবার ঠিকাদারকে বলেছিলাম,যেন সেপটিক ট্যাংকের নির্মাণ কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য । উনি কেন এটা করলেন না । আমাদের বোধগম্য নয়। আমরা উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিষয়টি জানিয়েছি। তিনি যাথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি থানার ওসি তদন্ত শিবেন বিশ্বাস বলেন এসআই আবদুর রহিম কে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে । এস আই আবদুর রহিম জানান, আমি ঘটনাস্থলে এসে দেখেছি। বিদ্যালয়ের সেপটিক ট্যাংকি বৃষ্টির পানিতে ডুবে আছে। এই পানিতে ডুবে শিশুটি মারা গিয়েছে বলেন স্থানীয়রা। শিশুটির লাশ রাত সাড়ে সাতটায় স্থানীয় ভাবে দাফন করা হয়।
এদিকে, বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকায় অভিযুক্ত ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি।