কুমিল্লায় কীটনাশক দেওয়া পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ সপ্তাহ আগে

কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলায় কীটনাশক দেওয়া পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে কীটনাশকযুক্ত পানি খেয়ে ফাহাদ (৯) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
সোমবার (১৩ মে) সকাল সাড়ে আটটায় উপজেলার জগন্নাথপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত ফাহাদ জগন্নাথপুর এলাকার মনির হোসেনের ছেলে। সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ছাত্র ছিলো। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশিদ মামুন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জগন্নাথপুর গ্রামে একটি পুকুর লিজ নিয়ে একই গ্রামের আইয়ুব আলী মাছ চাষ করে আসছিলেন। তিনি একই দিন দিবাগত রাত ৩ টার দিকে কাউকে না জানিয়ে ওই পুকুরে মাছ ধরার জন্য শক্তিশালী কীটনাশক প্রয়োগ করেন। পরবর্তী সময়ে ওই পুকুরে কিছু মাছ ভাসতে দেখে স্থানীয় পাড়া-প্রতিবেশীরা মাছ ধরতে নেমে পড়ে। এদের মধ্যে ফাহাদও সেখানে মাছ ধরতে নামে। এক পর্যায়ে সে গভীর পানিতে ডুবে যাওয়ার সময় বিষাক্ত পানি খেয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। বিষয়টি উপস্থিত লোকজন টের পেয়ে দ্রুত ওই দুজনকে উদ্ধার করে কুমিল্লা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।
নিহত ফাহাদের মা সায়িদা বেগম বলেন, আমার ছেলে মাদ্রাসা থেকে এসে পুকুরে মাছ ধরতে গেলে আমি তার পিছে পিছে যাওয়ার ৪-৫ মিনিটের মধ্যে তাকে না দেখতে পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করি। পরবর্তীতে তাকে পুকুরে পাওয়া যায়। সাথে সাথে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। আমার ছেলেরে আমি এখন কই পামু।
এই বিষয়ে পুকুর লিজ নেওয়া আইয়ুব আলী বলেন, আমি মাছ ভেসে উঠার জন্য ট্যাবলেট প্রয়োগ করেছিলাম। সকালে মাছগুলো উঠিয়ে নিবো সেইজন্য। মাছ ভাসতে দেখে এলাকার মানুষ সেখানে নেমে পড়ে।
এই বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ হোসেন বলেন, আমি ঘটনাটি এইমাত্র শুনেছি। আমি সেখানে পুলিশ পাঠাচ্ছি।