কুসিক নির্বাচন : প্রধান তিন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর বাক যুদ্ধ অব্যাহত

# দূর্গপূজার ঘটনায় সাক্কু ও তার পি এস জড়িত - রিফাত # আমি জড়িত হলে রিফাত সাহেব এতদিন বলেননি কেন - সাক্কু # দূর্গাপূজার ঘটনায় তারা দুই জনই দায়ী - কায়সার
স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৪ সপ্তাহ আগে

নির্বাচনের মাত্র আর ৭ দিন বাকী। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে প্রধান তিন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর বাকযুদ্ধ ততই বাড়ছে। একজন আরেকজনকে অভিযুক্ত করছেন। পুরো মহানগরী যেন আজ নৌকা, টেবিল ঘড়ি ও ঘোড়ায় বিভক্ত হয়ে আছে।

দূর্গপূজার ঘটনায় সাক্কু ও তার পি এস জড়িত – রিফাত
সোমবার কুমিল্লার আদালত ও দিগাম্বরীতলাসহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে দিনভর গণসংযোগ ও পথসভা করেন মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামীলীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত।
দিগাম্বরীতলার পথসভায় নৌকার মাঝি আরফানুল হক রিফাত বলেন, গত দূর্গাপূজায় নগরীর নানুয়াদিঘির পাড়ে যে দু:খজনক ঘটনা ঘটেছে তার সাথে তৎকালীন মেয়র মনিরুল হক সাক্কু ও তার পি এস জড়িত। তিনি যদি সরাসরি জড়িত না থাকতেন তাহলে ঘটনাটা এত দূর যেত না। আজ ভোটের জন্য তিনি হিন্দু ধর্মাবলম্বী ভাই বোনদের পেছনে পেছনে ঘুরছেন। কিন্তু কুমিল্লার হিন্দু সম্প্রদায় মনিরুল হক সাক্কুর সেই দিনের কথা ভুলে যাননি।
আমি জড়িত হলে রিফাত সাহেব এতদিন বলেননি কেন – সাক্কু
সোমবার কুমিল্লা নগরীর ১নং ওয়ার্ডের ভাটপাড়া চৌমহনী থেকে গণসংযোগ শুরু করেছেন কুমিল্লা সিটির সাবেক মেয়র ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু।
এ সময় টেবিল ঘড়ি নিয়ে নির্বাচন করা মনিরুল হক সাক্কু বলেন, রিফাত সাহেব দূর্গাপূজার ঘটনা নিয়ে আমাকে অভিযুক্ত করে কথা বলেন। আমি বুঝতে পারি না এমন একটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন কথা উনার মত মানুষ কিভাবে বলেন। উনিতো বলে শিক্ষিত মানুষ । উনার জানার কথা দূর্গাপূজার ঘটনা নিয়ে প্রতিটি গোয়েন্দা সংস্থা তদন্ত করতেছে। এখনো তদন্ত শেষ হয়নি। তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই উনি বলে দিল আমি দায়ী। আমার প্রশ্ন , একটু উনাকে বলবেন , এতদিন কেন তিনি আমাকে দায়ি করেননি। । মানুষ কিন্তু এখন তাকেও সন্দেহ করতে পারে।
নিরপেক্ষ তদন্তেই সব কিছু বের হয়ে আসবে – কায়সার
সোমবার কুমিল্লা নগরীর ৩নং ওয়ার্ডে দিনভর গণসংযোগ করেন কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার ।
গহণসংযোগকালে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, দূর্গাপূজার ঘটনার দায় ক্ষমতাসীন দলের নেতা হিসেবে রিফাত সাহেব আর নগরের মেয়র হিসেবে সাক্কু সাহেব কেউ ই দায় এড়াতে পারবে না। ঘটনার প্রায় এক বছর গত হতে চললেও এখনো তদন্তের রিপোর্ট বের হয়নি। কি কারণে এবং কিভাবে এত বড় ঘটনা ঘটল নগরবাসী এখনো তা জানতে পারেনি। এটা আমাদের হিন্দু সম্প্রদায় ভাই বোনদের জন্য অতীব দু:খজনক ঘটনা। নিরপেক্ষ তদন্তেই সব কিছু বের হয়ে আসবে। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে চেষ্টা করব আইনশৃংখলা বাহিনীর সাথে কথা বলে প্রয়োজনে সরকারের উর্ধ্বতন মহলের সাথে কথা বলে দ্রুত প্রকৃত সত্য নগরবাসীকে জানাতে।
হিন্দু সম্প্রদায়কে উদ্দেশ্যে করে নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, তারা দুই জনের কেউ আপনাদের সমস্যা সমাধান করবে না। দয়া করে ১৫ জুন একবারের জন্য হলেও ঘোড়া প্রতীকে ভোট দিন ইনশাআল্লাহ আপনাকে সার্বিক সমস্যা সমাধানে নিজকে উৎসর্গ করব ইনশাআল্লাহ্ ।