গার্ড ও যাত্রীদের বাক-বিতণ্ডায় ১ ঘণ্টা আটকা মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :  ট্রেনের বগিতে পানি পড়াকে কেন্দ্র করে গার্ড ও যাত্রীদের মধ্যে বাক-বিতণ্ডার ঘটনা ঘটেছে। এতে করে ঢাকাগামী আন্তঃনগর মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেন এক ঘণ্টার বেশি আটকে থাকে।

শুক্রবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলস্টেশনে এ ঘটনা ঘটে। নির্ধারিত সময় ট্রেনটি ছেড়ে না যাওয়ায় যাত্রীরা দুর্ভোগ পোহায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও যাত্রীরা জানান, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আন্তঃনগর মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিকেল ৩ টায় লাকসাম স্টেশনে যাত্রাবিরতি দেয়। এ সময় ওই ট্রেনের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত চ বগিতে ছাদ চুষে  বৃষ্টি ও এসির পানি বগির ভেতরে পড়তে থাকে। এতে বগিতে থাকা ১২টি আসনে পানি পড়ায় যাত্রীরা ভিজে দুর্ভোগে পড়ে। ট্রেনটি বিকেল ৫ টায় আখাউড়া রেলওয়ে জংশন স্টেশনে যাত্রাবিরিতি দেয়। এ সময় চ বগিতে থাকা দুর্ভোগের শিকার যাত্রীরা ওই ট্রেনের পরিচালকের (গার্ড) কাছে গিয়ে তারা ট্রেনের অব্যবস্থাপনার বিষয় নিয়ে বললে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা সৃষ্টি হয়। এতে করে ট্রেনের পরিচালক তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ট্রেন চালতে অস্বীকৃতি জানায়। এতে প্রায় এক ঘণ্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে।
ঢাকাগামী আন্তঃনগর মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেন

ঢাকাগামী আন্তঃনগর মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেন

পরে আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশন সুপারিনটেনডেন্ট কামরুল হাসান তালুকদার  ও স্টেশনে দায়িত্বরত রেলওয়ে পুলিশ সদস্যরা বগিতে পানি পড়া বন্ধের আশ্বাস দিলে যাত্রীরা শান্ত হয়।

এ বগির ট্রেন যাত্রী ঢাকার আলাউদ্দিন বেগ বলেন, পরিবার নিয়ে ঢাকা যেতে মহানগর একপ্রেস ট্রেনে চট্টগ্রাম থেকে উঠা হয়। ট্রেনটি লাকসাম স্টেশনে আসার পর পরই বগিতে ছাদ চুষে পানি পড়তে থাকে।  এতে করে নিজ আসন ছেড়ে কষ্ট করে অন্যত্র দাঁড়িয়ে থাকতে হয়।

আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশন সুপারিনটেনডেন্ট কামরুল হাসান তালুকদার বলেন, যাত্রীরা উত্তেজিত হয়ে গার্ডের সঙ্গে অশোভন আচরণ করে। এতে এক ঘণ্টা বিলম্ব হয়। পরে বগিতে পলিথিন ও ত্রিপাল জাতীয় কাপড়  দিয়ে  পানি পড়া বন্ধ করে দিলে ট্রেনটি ৫ টা ৫৮ মিনিটে  ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।