ঘরের মাঠে দুই টেস্টই জিততে চান সিডন্স

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৭ মাস আগে

বড় ফরম্যাটে খারাপ রেকর্ড থাকলেও আসন্ন দুই ম্যাচের সিরিজে শ্রীলংকাকে হোয়াইটওয়াশ করাই প্রধান লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্স।

সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে দুই টেস্টেরই দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং লাইন-আপে ধস নামে মুমিনুল এন্ড কোংয়ের। এটি প্রমান করে ক্রিকেটের আভিজাত ফরম্যাটে এখনও সেরা হয়ে উঠতে পারেনি বাংলাদেশ। দুই টেস্টেই দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ধসে চড়া মূল্য দিতে হয় বাংলাদেশকে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিলো টাইগাররা।

তবে ঘরের মাঠে খেলা হওয়ায়, অতীত নিয়ে মোটেও বিচলিত নন সিডন্স। তিনি বলেন, শ্রীলংকার ব্যাটিং-বোলিং খুবই ভালো। তাই টেস্ট ম্যাচ জিততে হলে, আমাদের সেরা খেলাটা  খেলতে হবে। অবশ্যই আমাদের লক্ষ্য ঘরের মাঠে দুই টেস্টেই জয়।

তিনি আরো বলেন, সব সময় ঘরের মাঠে সব ম্যাচ জিততে চাই আমরা। কিন্তু বাস্তবতা হলো, এটি সব সময় হয় না। আমরা ভালো ক্রিকেট খেলবো। চট্টগ্রামে এই দলের বিপক্ষে আমরা আত্মবিশ্বাসী। পাঁচ দিন ভালো ক্রিকেট খেলা আমাদের চ্যালেঞ্জ। দেখুন শেষ পর্যন্ত কি হয়।

২০০৮-২০১১ সাল পর্যন্ত প্রধান কোচ হিসেবে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব পালন করা সিডন্স মনে করেন, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে তারা কিছু অর্জন করেছেন, যা শ্রীলংকার বিপক্ষে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে তাদের।

সিডন্স বলেন, দক্ষিণ আফিকা সফরটি বেশ দীর্ঘ ছিল। আমার মতে, ওয়ানডে দলের কারনে এটি একটি সফল সফর ছিল। টেস্ট ক্রিকেটে ভালো খেলিনি। ক্রিকেটে ভালো-খারাপ দিন থাকবেই। আমাদের দুই-একটি খারাপ দিন ছিল, যা আমাদের শেষ করে দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমার মনে হয়, ঐ দুই টেস্টে আমরা সত্যিই কিছু ভালো ক্রিকেট খেলেছি। তাইজুল নয় উইকেট শিকার করেছে। ক্যারিয়ারের শুরুতেই জয় সেঞ্চুরি পেয়েছে। প্রথম ইনিংসে আমরা দারুণ শুরু করেছি, তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো খেলতে পারিনি। আসল লক্ষ্য হলো, প্রথম ইনিংসের বড় রান করা।

সদ্য শেষ হওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) বেশিরভাগ ক্রিকেটারই রান পেয়েছেন, যা শ্রীলংকার বিপক্ষে ভাল করতে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস দিবে বলে মনে করেন সিডন্স।

তিনি বলেন, আমাদের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই প্রিমিয়ার লিগে রান করেছেন। ব্যাটিং করেছে তারা, রান করেছে, আত্মবিশ্বাসও পেয়েছে। এখানে আমরা ভালো ৪-৫ দিন পেয়েছি। এখন পর্যন্ত আমাদের দু’টি দুর্দান্ত দিন গেছে। আমরা কিছু জায়গায় কাজ করেছি। আমরা আমাদের ব্যাটিং নিয়ে অনেক কথা বলেছি। আমাদের এখনও অনেক কথা বলার আছে। আমাদের অনুশীলনের আরও তিনটি ভালো দিন আছে। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের  পর যা যথেষ্ট ।