চৌদ্দগ্রামে স্টার লাইন বাস চাপায় দিনমজুর নিহত, প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ, বাস কাউন্টারে তালা

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মঙ্গলবার বিকেলে যাত্রীবাহী পরিবহন চেয়ারকোচ স্টার লাইনের চাপায় এরশাদ(৩২) নামে এক দিনমজুর নিহত হয়েছেন। এ সময় মহাসড়কে স্টারলাইন পরিবহনের ১৫টি গাড়ি একঘন্টা আটকে রাখে এবং ওই পরিবহনের কাউন্টারে তালা ঝুলিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা।
নিহত এরশাদ পৌরসভার সোনাকাটিয়া গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদিনের পুত্র। সন্ধ্যায় তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন মিয়াবাজার হাইওয়ে থানার ইনচার্জ এসএম লোকমান হোসেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে এরশাদ একটি ধান মাড়াই মেশিন মহাসড়কের চৌদ্দগ্রামের ডাক বাংলো নামকস্থানে পৌঁছালে ঢাকা থেকে ফেনীগামী বেপরোয়া গতিতে আসা স্টারলাইন পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়। এ সময় চেয়ারকোচটি দ্রুতগতিতে পালিয়ে যায়। পরে উত্তেজিত জনতা মহাসড়কে এসে চট্রগ্রাম ও ঢাকামুখী ১৫টি স্টারলাইন পরিবহনের বাস প্রায় একঘন্টা অবরোধ করে রাখে। এ সময় তারা বাসটির চৌদ্দগ্রাম কাউন্টারে তালা ঝুলিয়ে দেয়। খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম থানা ও মিয়াবাজার হাইওয়ে থানার পুলিশ এসে উত্তেজিত জনতাকে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলে গাড়িগুলো ছেড়ে দেয়।
মিয়াবাজার হাইওয়ে থানার ইনচার্জ এসএম লোকমান হোসেন বলেন, দূর্ঘটনার খবর পেয়ে আমরা নিহত এরশাদের লাশ হাসপাতাল থেকে হাইওয়ে থানায় নিয়ে আসার পরে উত্তেজিত জনতা মহাসড়ক বেরিকেড দিয়ে স্টারলাইন পরিবহনের বেশ কিছু বাস আটক করে।
চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। উত্তেজিত জনতাকে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেয়া হয়েছে। মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে এবং স্টার লাইন পরিবহন কাউন্টারের তালা খুলে দেয়া হয়েছে।