জাল ভোটেরর ভিডিও করায় এক সংবাদকর্মীকে হেনস্তা

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

কুমিল্লা সদর দক্ষিণের শীষপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোট দেওয়ার ভিডিও করায় এক সংবাদকর্মীকে হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ‘একুশে সংবাদ’ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আবু নোমান সায়েম জানান, সকাল ১০টার দিকে সদর দক্ষিণের শীষপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কিছু যুবক জাল ভোট দেয়ার সময় তিনি ভিডিও করায় তাকে হেনস্তা করে গায়ে হাত তোলা হয় এবং ভোট কক্ষের বাইরে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হয়।
এ সময় সেখানে থাকা অন্যান্য সংবাদকর্মী ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে উদ্ধার করেন বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, কাপ-পিরিচ প্রতীকের কর্মী মো. আব্দুল্লাহ তাকে হেনস্তা করেন।
সদর দক্ষিণ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কাপ-পিরিচ প্রতীকে বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম সারোয়ার। তিনি সাবেক অর্থমন্ত্রী ও বর্তমান সাংসদ আ হ ম মোস্তফা কামালের ছোট ভাই। এছাড়া হেলিকপ্টার প্রতীকে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাবলু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাকে সমর্থন দিচ্ছেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার। আনারস প্রতীকে ইঞ্জিনিয়ার আখতারুজ্জামান রিপন ও কাউছারুল ইসলাম মোটরসাইকেল প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন নির্বাচনে।
বাহাউদ্দীন বাহার সমর্থিত আব্দুল হাই বাবলু বলেন, আমি বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান। বিগত পনের বছর ধরে আস্থার সাথে সদর দক্ষিণ উপজেলায় মানুষের জন্য কাজ করছি। মানুষ আমাকে ভোট দেবে।
অপর দিকে সাবেক অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের ভাই গোলাম সারোয়ার বলেন বাহির থেকে ভাড়াটিয়া লোক এনে সদর দক্ষিণের মানুষকে ভয় ভীতি দেখিয়ে লাভ নেই। এ এলাকার মানুষ মোস্তফা কামালের আস্থাভাজনকেই মনোনীত করবে।
এছাড়াও সাত জন ভাইস চেয়ারম্যান ও তিন জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।