ডাক্তার পরিচয়ে ৩৫ বছর ধরে প্রতারণা!

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৪ সপ্তাহ আগে

এসএসসি পাশ না করেও ৩৫ বছর ধরে ডাক্তারি পরিচয়ে রোগী দেখছেন ওয়াদুদ নামে এক প্রতারক। মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার রবিরবাজার এলাকার টিলাগাঁও রোডে নিজের চেম্বারে নিয়মিত রোগী দেখেন তিনি।

তবে শেষরক্ষা হয়নি তার। বৃহস্পতিবার তাকে জরিমানার পাশপাশি চেম্বার বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওয়াদুদ এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে আর লেখাপড়া করেননি। তবে নামের সঙ্গে বড় করে ‘ডা.’ লেখা রয়েছে। সেই সঙ্গে নিজেকে মেডিসিন, বক্ষব্যাধি, চর্ম ও যৌন, মা ও শিশু, সার্জারি এবং ডেলিভারিতে বিশেষজ্ঞ বলে পরিচয় দেন।

সম্প্রতি স্থানীয় এক সাংবাদিকের শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে ওয়াদুদের চেম্বারে নেওয়া হয়। সেখানে টিকিৎসক পরিচয়ধারী ওয়াদুদের গতিপ্রকৃতি দেখে ওই সাংবাদিকের সন্দেহ হয়। আলাপচারিতার একপর্যায়ে ওয়াদুদ জানান, পড়াশোনা করে নয়, শুধুমাত্র দেখতে দেখতে ডাক্তার হয়েছেন তিনি। বেশ অভিজ্ঞতাও রয়েছে তার।

বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে জানানো হলে বৃহস্পতিবার ওয়াদুদের চেম্বারে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালায়। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং তার চেম্বারটি বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়।

কুলাউড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মেহেদি হাসান বলেন, এতদিন প্রতারণা করে আসছিলেন ওয়াদুদ। তার কোনো যোগ্যতা নেই। এসএসসিও পাশ করেননি। বড় বড় ডিগ্রি ব্যবহার করে রোগী দেখার সত্যতা পাই আমরা। এজন্য জরিমানা করা হয়েছে।