তীব্র গরমে পথচারীদের মাঝে ঠান্ডা শরবত বিলিয়ে দিচ্ছে পুলিশ

জাহিদ হাসান নাইম
প্রকাশ: ১ মাস আগে

 

বৈশাখের প্রখর রোদ ও তাপমাত্রা যখন ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে, তখন ক্লান্ত পথচারীদের মাঝে ঠান্ডা শরবত ও স্যালাইন বিলিয়ে দিচ্ছে কুমিল্লা জেলা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড় পূবালী চত্ত্বর মোড়ে এমন চিত্র দেখা দিয়েছে।

এই তীব্র গরমে যখন সাধারণ মানুষ হাঁসফাঁস করছে, তখন পুলিশের সদস্যরা নিজেদের স্বাস্থ্যের প্রতি উদাসীন থেকে নিরলসভাবে যানজট নিরসন ও নাগরিকদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

মেয়েকে নিয়ে লালমাই উপজেলা থেকে ডাক্তার দেখাতে আসা মোঃ শাহ আলম বলেন, তীব্র গরমে পুলিশের এমন উদ্যোগ ভালো লেগেছে। এমন চিত্র সচরাচর দেখা যায় না।

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা থেকে আসা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এই উদ্যোগের মাধ্যমে কুমিল্লা জেলা পুলিশ নিজেদের কেবল একটি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা হিসেবেই নয়, বরং একটি মানবিক সংস্থা হিসেবেও প্রমাণিত হয়েছে। এই উদ্যোগ সমাজের প্রতি পুলিশের দায়িত্ববোধ ও মানবিকতার প্রতিফলন। তাঁদের এই মানবিক কাজ সমাজের সকল স্তরে প্রশংসা ও অনুকরণের যোগ্য।

ট্রাফিক ইন্সপেক্টর জিয়াউল হক চৌধুরী বলেন, দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের ও পথচারীদের স্বস্তি দিতে এবং তাদের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করতে এই উদ্যোগ নিয়েছি। এসপি মহোদয়ের এই উপলব্ধি ও উদ্যোগ ট্রাফিক সদস্যদের এই তীব্র গরমের মধ্যেও দায়িত্ব পালনে আরো উদ্বুদ্ধ করবে। এই উদ্যোগ যেমন পুলিশ সদস্যদের জন্য স্বস্তি এনেছে, তেমনি সাধারণ মানুষের মধ্যেও এক নতুন আস্থা তৈরি করেছে।

সহকারী পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান বলেন, তীব্র গরমে মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিতে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। আমরা জনগণের সেবা দিতে সর্বদা প্রস্তুত আছি।

এই বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান বলেন, ট্রাফিক পুলিশ সদস্য ও শ্রমজীবী মানুষের মধ্যে বিশুদ্ধ পানি, শরবত ও স্যালাইন বিতরণ করা হয়েছে। ট্রাফিক ইন্সপেক্টর জিয়াউল চৌধুরী টিপু ও তাঁর সহকর্মীরা এই কাজে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। তাঁদের এই মানবিক উদ্যোগ নিঃসন্দেহে সমাজের অন্যান্য সদস্যদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস।