দেবিদ্বারে আগুন ছাই করে দিয়েছে দু’টি পরিবারের সব কিছু

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

দেবিদ্বার প্রতিনিধি।।

কুমিল্লার দেবিদ্বারে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে সৃস্ট অগ্নিকান্ডে সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে দুটি পরিবারের। এতে প্রায় ৬ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগি পরিবার ও এলাকাবাসী। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার দিবাগত ভোর রাত অনুমান সাড়ে ৪ টায় দেবিদ্বার পৌর এলাকার বিনাইপাড় গ্রামের রেয়াজ উদ্দিন সরকার বাড়িতে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত ভোর রাত অনুমান সাড়ে ৪ টায় সৌদী প্রবাসী মো. দেলোয়ার হোসেনের ঘরে হঠাৎ দাউদাউ করে আগুন জ¦লে উঠে। যা মুহুর্তেই ছড়িয়ে পড়ে প্রতিবেশী দিনমজুর নাছির উদ্দিনের ঘরেও। আগুন নিয়ন্ত্রনের সুযোগ না থাকায় দু’টি ঘরই নিমিষে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে দু’টি টিনসেড ঘর ও ঘরে থাকা আসবাব সামগ্রী, নগদ টাকা, মোবাইল সেট, স্বর্নালংকার, খাবারসহ সব কিছুই পুড়ে যায়। খবর পেয়ে এক ঘন্টা পর মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ নুরুল হুদার নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থলে আসলেও তাদের আর তেমন কিছুই করার থাকে নি।

ক্ষতিগ্রস্ত সৌদী প্রবাসী নূরুল ইসলামের স্ত্রী, ৩ কণ্যা ও দিনমজুর নাছির উদ্দিন, তার স্ত্রী ও ২কণ্যা পরনের কাপড় নিয়ে কোনো রকমে আত্মরক্ষা করতে পারলেও ঘরে থাকা আর কিছুই বেরা করতে পারেনি।
অগ্নিকান্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ভোক্তভূগী দুই পরিবারের দাবী ৬ লক্ষাধিক টাকা, ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা বলছেন ক্ষয় ক্ষতির পরিমান আড়াই লক্ষ টাকা হবে।

স্থানীয় ৪নং ওয়ার্ড কমিশনার মো. সহিদুর ইসলাম বলেন, অগ্নিকান্ড দু’টি পরিবারকেই পথে বসিয়ে দিয়ে গেল। প্রায় ৩ মাস পূর্বে দেলোয়ার হোসেন ব্যাংক ঋণ ও এনজিওগুলোতে কিস্তি এবং স্বজনদের কাছ থেকে ধার কর্জ করে পরিবারের অভাব ঘুচাতে সৌদী পাড়ি দিয়েছেন। তার স্ত্রী ও ৩ কণ্যার পড়নের কাপড় ছাড়া আর কিছুই অবশিষ্ট নাই। অপরদিকে দিনমজুর নাছির তার স্ত্রী ও ২ কণ্যাকে নিয়ে জীবন বাঁচাতে পারলেও আর কিছুই রক্ষা করতে পারেনি।

মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মো. নুরুল হুদা জানান, বিলম্বে সংবাদ পাওয়া এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা অনুন্নত ও ঘনবসতি থাকায় ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে বিলম্ব হয়েছে। শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হতে পারে এবং ক্ষয় ক্ষতির পরিমান আনুমানিক আড়াই লক্ষ টাকা হতে পারে।