ধর্ষণ মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

ফেনী প্রতিনিধি :
প্রকাশ: ২ মাস আগে

ফেনীর সোনাগাজীতে ধর্ষণের মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মো. আবুল কাশেমকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

বৃহস্পতিবার আবুল কাশেমকে আদালতের মাধ্যমে ফেনী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে, বুধবার সন্ধ্যায় কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার কুটুম্বপুর এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আবুল কাশেমকে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার বাসিন্দা।

জানা যায়, ২০০৩ সালের ১৩ মে রাতে কয়েকজন যুবক সোনাগাজী উপজেলার একটি বাড়িতে দরজা ভেঙে ঢোকেন। পরে তারা ঐ বাড়ির গৃহবধূকে বেঁধে রাখেন ও গৃহবধূর কিশোরী মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন। এ ঘটনার পরের দিন ঐ কিশোরীর মা বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চারজনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার তদন্ত শেষে একই বছরের ১৩ আগস্ট সোনাগাজী থানার এসআই নুরুল ইসলাম চার আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। মামলার শুনানির সময় নয়জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। দীর্ঘ ১৯ বছর পর চলতি বছরের ১৪ জুলাই মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। রায়ে এক আসামিকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।

পুলিশ জানায়, সোনাগাজী উপজেলার এক কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গত ১৪ জুলাই তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ ওসমান হায়দার। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের একজন হলেন আবুল কাশেম।

এর আগে, গত মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর দক্ষিণ বাড্ডা এলাকা থেকে একই মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আরেক আসামি লাতু মিয়াকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। দণ্ডপ্রাপ্ত অন্য দুই আসামি হলেন- একই উপজেলার লাতু মিয়া ও জাহাঙ্গীর আলম। এছাড়া গত ১০ সেপ্টেম্বর রাতে ফেনী শহরের মিজান রোডের একটি বাসা থেকে জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ নিয়ে কিশোরী ধর্ষণ মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামিই গ্রেফতার হলেন।

র‍্যাব-৩ এর উপ-পরিদর্শক মো. আল আমিন সরকার বলেন, আদালত থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামির গ্রেফতারি পরোয়ানা থানায় আসার পর থেকে পুলিশের পাশাপাশি র‍্যাব সদস্যরাও আসামিদের খোঁজে মাঠে নামেন। সম্প্রতি পুলিশের সহায়তায় তিন আসামির মধ্যে লাতু মিয়া ও আবুল কাশেমের ছবি ও মুঠোফোন নম্বর র‍্যাবের হাতে আসে। পরে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় আবুল কাশেমকে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার কুটুম্বপুর এলাকার একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। আবুল কাশেমকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বুধবার রাতেই সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. খালেদ হোসেন দাইয়ান বলেন, আবুল কাশেমকে বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে ফেনী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।