নাঙ্গলকোটে নিকাহ্ রেজিষ্ট্রারের বিরুদ্ধে হয়রানি, হামলা ও অপপ্রচারের অভিযোগ

নাঙ্গলকোট প্রতিনিধি ।।
প্রকাশ: ২ মাস আগে

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের মক্রপুর ইউনিয়ন নিকাহ্ রেজিষ্ট্রার শাহজালাল অপু’র হয়রানি ও ভুলুয়াপাড়া গ্রামের সমাজ সেবক আব্দুল মমিনের উপর হামলা এবং অপপ্রচারের প্রতিবাদে স্থানীয় ভুলুয়াপাড়া গ্রামবাসী প্রতিবাদ সমাবেশ করে। সোমবার দুপুরে ভুলুয়া পাড়া গ্রামের শতাধিক লোকজন প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন।
প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, নাঙ্গলকোট বাজারের ব্যবসায়ী আরিফুল আলম নোমান, প্রবীণ সমাজ সেবক আলহাজ্ব মোখলেছুর রহমান, আব্দুস সোবহান মজুমদার, সমাজ সেবক মোবারক হোসেন, আলী আক্কাস, সাইফুল ইসলাম, পেয়ার আহম্মেদ, সালাহ উদ্দিন নিশান, মোশারফ হোসেন, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, ফরহাদ, মোহম্মদ আরিফ প্রমূখ।
প্রতিবাদ সমাবেশে আব্দুল মমিন বলেন, আমি আমার ভাতিজির কাবিন নামার কপি সংগ্রহ করতে রবিবার সকাল ১১টার দিকে মক্রবপুর ইউনিয়ন কাজী শাহজালাল অপুর কার্যালয়ে যাই। কাজীকে না পেয়ে ফোন করলে সে আমাকে আসছে বলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বসিয়ে রাখে। পরে আবার ফোন করলে তার সহকারীর নিকট ৫শ’ টাকা দিয়ে চলে যেতে বলে এবং সন্ধ্যার পর আসতে বলে। আমি সন্ধ্যার পর তার অফিসে গিয়ে তাকে না পেয়ে দোকানে বসে স্থানীয় কয়েক জনের কাছে বিষয়টি অবহিত করলে ক্ষিপ্ত হয়ে সে এবং তার সহকারী সাবেক মেম্বার ইব্রাহিম খলিল সহ কয়েকজন সন্ত্রাসী আমার উপর চড়াও হন। খবর পেয়ে ভুলুয়া পাড়া গ্রামের সাবেক মেম্বার মোজাম্মেল হক ও মোবারক হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিষয়টি সুরাহা করে। গ্রামে এসে আমি বিষয়টি গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে তারা ফোনে কাজীর কাছে ঘটনা জানতে চাইলে সে কোন সদুত্তর না দিয়ে উল্টো আমার চরিত্র হননের চেষ্টা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালায়।
এ ব্যাপারে প্রবীণ সমাজ সেবক আলহাজ্ব মোখলেছুর রহমান, আব্দুস সোবহান মজুমদার, সমাজ সেবক মোবারক হোসেন বলেন, আমরা দীর্ঘদিন থেকে কাজী শাহজালাল অপুর হয়রানির শিকার। তাছাড়া সে আমাদের গ্রামের আব্দুল মমিনের উপর হামলা ও মিথ্যা অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং কাজী দুর্নীতি ও মানুষকে হয়রানির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানাই।