পুলিশ থাকলেই থাকে কোম্পানীগঞ্জ যানজট মুক্ত

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে
smart

এন এ মুরাদ ।। কুমিল্লা সিলেট মহাসড়কের কোম্পানীগঞ্জ এলাকায় সড়ক প্রসস্ত করণের কাজ করছেন সওজ। যার ফলে এক লেনে চলে গাড়ি। ব্যস্ত এই মহাসড়কে এক লেনে গাড়ি চলার কারনে সৃষ্টি করে দীর্ঘ যানজট। গত শনিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া যাওয়ার পথে এমনই একটি যানজটের কবলে পড়েন চট্রগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন। তাঁহার গাড়ী সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মুরাদনগর থানা এলাকার কোম্পানীগঞ্জ বাজারে জামে আটকা পড়েন । তখন সড়কে থাকা কমিউটিটি পুলিশিংয়ের সাদ্দাম , ইসমাইল ও গাড়ীর কেরানী ইউনুছ, মামুন,সবুজ, এরা ডিআইজির গাড়িটিকে বেড়ি বাধেঁর উপর থেকে নামিয়ে কোম্পনীগঞ্জ নবীনগর সড়ক দিয়ে কুমিল্লা সিলেট মহাসড়কে তুলে দেন।
তখন সেখানে মুরাদনগর থানার কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসিম কিংবা পুলিশের অন্য কোনো সদস্য উপস্থিত ছিলেন না। পরে দুপুরেই ওসি’কে মুরাদনগর থেকে প্রত্যাহার করে চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুমে সংযুক্ত করা হয়েছে। তবে প্রত্যাহারের ওই আদেশে ডিআইজির যানজটে আটকে থাকার কোনো বিষয় উল্লেখ না থাকলেও এটিই মূল কারণ বলে ধারনা করছেন সচেতন মহল। এই নিয়ে সোসাল মিডিয়াও বসে নেই ওসির প্রত্যাহার নিয়ে ফেসবুক জুড়ে চলছে নানা সমালোচনা।

এদিকে মুরাদনগর থানার ওসি আবুল হাসিমকে প্রত্যাহারের পর রবিবার (২১ আগস্ট) মুরাদনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ১৬ সদস্যের একটি টিম নিয়ে কাজ করে যানজট মুক্ত রেখেছেন কোম্পানীগঞ্জ। হঠাৎ পুলিশের কাজের এমন তৎপরতায় স্বস্থি ফিরেছে সড়কে। অন্যদিনের তুলনায় দিনভর এই মহাসড়ক ছিল অনেকটাই জঞ্জাল মুক্ত।
গাড়ীর হেল্পার আল আমিন ও রফিক জানান, সড়কের কাজ হচ্ছে বলে প্রতিদিনই দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। পুলিশ আসলে কিছুটা ফাঁকা হয়। চলে গেলে আবার আগের মতো হয়ে যায়। রবিবার পুলিশের উপস্থিতি বেশি থাকায় যানজট ছিল না।
জনভোগান্তি নিরসনে পুলিশের এমন সুন্দর ভূমিকা কত দিন থাকবে জানতে চাইলে মুরাদনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পিযুষ চন্দ্র দাস বলেন, এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। যানজট দূরিকরণে প্রতিদিনই পুলিশ কাজ করবে। তবে অটোচালকরা পুলিশ দেখলে যেইভাবে সচেতন হয় যদি সবসময় এমন থাকত তাহলে যানজট অনেকটাই থাকত না।
এবিষয়ে মিরপুর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কামাল উদ্দিন বলেন, প্রতিদিনই আমাদের একটি টিম যানজট নিরসনে কাজ করছে। শনিবার যখন ডিআইজি স্যার এই পথ অতিক্রম করেন তখন আমাদের হাইওয়ে পুলিশ টিম কোম্পনীগঞ্জে উপস্থিত ছিল।