ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বেড়েছে চুরি-ছিনতাই

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ মাস আগে

ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে চুরি-ছিনতাইয়ের ঘটনা। গত দেড় থেকে দুই মাসে অন্তত শতাধিক চুরি-ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। রোগী কিংবা স্বজন কেউই এ চুরি ও ছিনতাইয়ের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেন না।

কিছুদিন আগে রাতে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ড থেকে কামরুল ইসলাম নামের এক রোগীর স্বজনের মোবাইল চুরি হয়। তার কয়েকদিন আগে আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসা পারুল আক্তার ও শিউলী বেগম নামের আরও দুজনের মোবাইল চুরি হয়।

ভুক্তভোগী কামরুল ইসলামের স্বজন বলেন, ‘সারারাত জাগার পর শেষ রাতে কোনোমতে আধাঘণ্টা ঘুমিয়েছি। উঠে দেখি মোবাইল নেই। আমার মতো এরকম আরও ৮-১০ জনের মোবাইল ও টাকা-পয়সা চুরি হয়েছে।’

সম্প্রতি হাসপাতালের একটি ওয়ার্ডে ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন এক নারী। ছিনতাইকারীরা তার লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। এ ঘটনা হাসপাতালজুড়ে আলোচিত হয়।

রাজবাড়ী ও মাদারীপুর থেকে চিকিৎসা নিতে আসা আজগর শেখ, মহিদুল ইসলাম, আলেয়া বেগমসহ একাধিক রোগী ও স্বজনদের অভিযোগ, বিভিন্ন সময়ে দালাল, চোর ও ছিনতাইকারীদের হাতেনাতে ধরে পুলিশে দেওয়া হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ বা মামলা করে না। এতে সহজেই তারা ছাড়া পেয়ে পুনরায় এ কাজে লিপ্ত হন।

এ বিষয়ে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এনামুল হক  বলেন, ইদানিং হাসপাতালে কিছু চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে জানতে পেরেছি। তবে এর সংখ্যা বা বিস্তারিত তথ্য জানা নেই। ভুক্তভোগী কেউ লিখিত অভিযোগও করেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।