বরুড়ার যুবকের বাড়িতে মালয়েশিয়ান তরুণী, বিয়ের আয়োজন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৩ মাস আগে

এবার মালয়েশিয়া থেকে কুমিল্লায় এসেছেন এক তরুণী নূর আজিমা। সাথে নিয়ে এসেছেন তার খালা ও খালাতো বোনকে। কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার গ্রামে আয়োজন করা হয় তাদের বিয়ের।

জানা গেছে, মালয়েশিয়ার পেনাং শহর থেকে ঈদের পরদিন সোমবার ওই তরুণী বরুড়া উপজেলার শিলমুড়ি ইউনিয়নের দীঘলগাঁও গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে সাইফুল ইসলামের বাড়িতে আসেন। পরদিন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাইফুল ও আজিমার সম্মতিতে তাদের বিয়ে হয়। ঈদ উৎসবের সময় বিদেশি কনে পেয়ে ওই গ্রামে আনন্দের হাট বসেছে। বউ দেখতে আসছেন প্রতিবেশীরা।

সাইফুলের বড় ভাই সুমন আহমেদ বলেন, ১০ বছর ধরে মালয়েশিয়ার পেনাং শহরে ব্যবসা করছেন সাইফুল। ব্যবসার সুবাদে নূর আজিমার সাথে পরিচয় হয়। তাদের সম্পর্কের কথা জানালে আমরা সম্মতি দেই। তাকে দেশে আনার জন্য বলি। নিজ বাড়িতে পরিবারের সম্মতিতে তাদের বিয়ে দেই। বিয়েতে তারা মালেশিয়ার আদলে পোশাক পরে। আমাদের স্বজনরা যোগ দেন। আনন্দ আয়োজনের কোনো কমতি ছিলো না।

সাইফুল বলেন, বহুদিনের পরিচয় আমাদের। তবে পরিচয়ের পর প্রেম হয়েছে দুবছর। প্রেমের পর থেকেই সে আমাকে চাপ দিচ্ছিল যেন তাকে বিয়ে করি। কিন্তু সে দেশের সরকার থেকে অনুমতি নিতে প্রায় ছয় মাস লেগেছে। অনুমতি পেয়ে আমরা একসাথেই মালয়েশিয়া থেকে বাড়ি আসি। পারিবারিকভাবে বিয়ে করি। নূর আজিমা বলেছে সে দেশেই থাকবে। আমাদের পরিবারের সাথেই থাকবে। পরিবারের সম্মতিতে মনের মানুষকে পেয়েছি তাই খুব ভালো লাগছে।