বাংলাদেশে বিশ্বকাপ ট্রফির সঙ্গে ছবি তুলতে পারবেন যারা

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৬ মাস আগে

প্রায় নয় বছর পর আবারও ফুটবল বিশ্বকাপের ট্রফি আসছে বাংলাদেশে। এর আগে ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে দুদিনের জন্য বাংলাদেশে এসেছিল বিশ্বকাপ ট্রফি। তাই এ ট্রফি নিয়ে স্বাভাবিকের চেয়ে বাড়তি উত্তেজনা কাজ করছে ফুটবলপ্রেমীদের।

এ বিষয়ে জানা গেছে, না, সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে না কাতার বিশ্বকাপ ফুটবলের সোনায় মোড়ানো সেই ট্রফি। যে কেউ এর সঙ্গে ছবি তুলতে পারছেন না। কেবল কোকাকোলা বাংলাদেশের আমন্ত্রিত অতিথি এবং কোকাকোলার ক্যাম্পেইন থেকে টিকিট পাওয়া গ্রাহকদের জন্য থাকছে এ সুযোগ।

জানা গেছে,  এ মুহূর্তে বিশ্বকাপ ট্রফি পাকিস্তানে অবস্থান করছে। বুধবার চার্টার্ড বিমানে উড়ে বাংলাদেশ সময় বেলা পৌনে ১১টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবে এ ট্রফি।

ট্রফির সঙ্গে থাকবেন ফিফার সাত কর্মকর্তার মধ্যে একজন ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্য ক্রিশ্চিয়ান কারেম্বু। সঙ্গে থাকবেন ফিফার অফিসিয়াল পার্টনার কোকাকোলার কয়েকজন কর্তাব্যক্তি।

বুধবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছাবে ট্রফিটি। এবারের বাংলাদেশ সফরে ৬০ ঘণ্টা বাংলাদেশে থাকবে ট্রফিটি।

এই সফরের প্রথম দিন (বুধবার) রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিয়ে যাওয়া হবে বিশ্বকাপ ট্রফিটি। পরদিন থাকবে ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার সুযোগ ও কোক স্টুডিও বাংলার কনসার্ট।

বিশ্বকাপ ট্রফির বাংলাদেশ ভ্রমণের দ্বিতীয় দিন রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেল র‍্যাডিসন ব্লুতে বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার ব্যবস্থা থাকবে। এজন্য ভেতরে প্রবেশের দরজা খুলে দেওয়া হবে বেলা ১১টা থেকেই।

তবে ছবি তোলার সুযোগ পাবেন শুধুমাত্র কোকাকোলা বাংলাদেশের আমন্ত্রিত অতিথি এবং কোকাকোলার ক্যাম্পেইন থেকে টিকিট পাওয়া গ্রাহকরা। বিশ্বকাপ ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার সুযোগ করে দিতে ২৫০ মিলি ৬০০ মিলি, ১.২৫ লিটার ও ২.২৫ লিটার কোকাকোলার বোতলে ক্যাম্পেইন আয়োজন করেছিল কর্তৃপক্ষ।

সেই ক্যাম্পেইন থেকে টিকিট সংগ্রহ করা কোকাকোলার গ্রাহকরা বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার মধ্যে র‍্যাডিসন ব্লু হোটেলে গিয়ে বিশ্বকাপ ট্রফির সঙ্গে ছবি তুলতে পারবেন। এরপর বিকেল ৫টা ৩০ মিনিটে ট্রফি চলে যাবে আর্মি স্টেডিয়ামে। সেখানে ট্রফি সামনে রেখেই হবে কোক স্টুডিওর কনসার্ট।

কনসার্ট শেষে রাতে ট্রফি আবার নিয়ে যাওয়া হবে র‍্যাডিসনে। তবে সেদিনই অর্থাৎ বৃহস্পতিবারই ট্রফিটি বাংলাদেশ ত্যাগ করবে না। শুক্রবার (১০ জুন) সারাদিনই এটি থাকবে বাংলাদেশে। তবে সেদিন ট্রফিকে ঘিরে কোনো কর্মসূচি নেই।

বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বলেন, বাংলাদেশ থেকে কোন সময় ট্রফি পূর্ব তিমুরের উদ্দেশে রওনা হবে এটি বুধবারই জানা যাবে।

তিনি আরও বলেন, ৮ জুন ট্রফি প্রদর্শনী নেই। এদিন শুধুমাত্র বঙ্গভবন ও গণভবনে ট্রফি যাবে। পর দিন বিকালে আর্মি স্টেডিয়ামে কনসার্ট হবে। সেই কনসার্টে জনসাধারণের প্রবেশ থাকলেও ছবি তোলার সুযোগ থাকবে সীমিত।

একই হতাশার খবর দিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলও।

তিনি বলেন, ‘আগামীকাল (আজ) দেশে ট্রফি এলেও সেটির প্রদর্শনী হবে না। শুধু বঙ্গভবন ও গণভবনে ট্রফি যাবে। পরের দিন সকালে হোটেল র‌্যাডিসন ব্লু এবং বিকালে আর্মি স্টেডিয়ামে কনসার্টে প্রদর্শন করা হবে ট্রফি। কনসার্টে জনসাধারণের প্রবেশ সুবিধা থাকলেও ছবি তোলার সুযোগ থাকবে সীমিত।’

এবার ৫১টি দেশে ঘোরার জন্য বের হয়েছে এ ট্রফি।