ব্যাংক থেকে তোলা ১১ লাখ টাকা পথেই হলো লুট

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৩ মাস আগে

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীর দাগনভূঞায় ব্যাংক থেকে টাকা তুলে বাড়িতে যাওয়ার পথে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে দুর্বৃত্তরা এক ব্যক্তির ১১ লাখ টাকা ছিনতাই করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

টাকা ছিনতাই হওয়া ব্যক্তির নাম মো. নুরুল করিম জুয়েল। তিনি রোববার দুপুর ১২টার দিকে ইসলামী ব্যাংক দাগনভূঞা শাখা থেকে এ টাকা তোলেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, নুরুল করিম জুয়েল ব্যাংক থেকে টাকা তুলে বাড়িতে যাওয়ার পথে উপজেলা সদরের জিরো পয়েন্টের অদূরে ফাজিলের ঘাট রোডে যাওয়া মাত্রই কালা মিয়ার দোকান সংলগ্ন এলাকায় একটি প্রাইভেটকার নুরুল করিমের গতিরোধ করে। দুর্বৃত্তরা নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে নুরুল করিমকে টেনে হিঁচড়ে তার হাতে হাতকড়া পরিয়ে তাদের গাড়িতে তুলে নেয়। এরপর তাকে অজ্ঞাত স্থানের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। গাড়িতেই তুলেই নুরুল করিমকে মারধর করে তার সঙ্গে থাকা সব টাকা দুর্বৃত্তরা ছিনতাই করে নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগীর বরাত দিয়ে তার চাচাতো ভাই দাগনভূঞা পৌরসভার কাউন্সিলর একরামুল হক জানান, মঙ্গলবার তাদের একটি জমি রেজিস্ট্রি করার কথা ছিল। ওই জমি কেনা বাবদ ১১ লাখ টাকা জুয়েলের অ্যাকাউন্টে জমা ছিল। রোববার দুপুরে ইসলামী ব্যাংক দাগনভূঞা শাখা থেকে টাকাগুলো তুলে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশাযোগে নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে ৪ ছিনতাইকারী ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে ১১ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়।

পরবর্তীতে তাকে ওই গাড়িতে করে উপজেলার বসুরহাট রোডের ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের মিরুর পোল নামক স্থানে রাস্তার পাশে একটি ঝোপের মধ্যে ফেলে যায়। পরে ভুক্তভোগী নূরুল করিম জুয়েল ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ওই স্থানে পৌঁছে তাকে উদ্ধার করেন।

দাগনভূঞা থানার ওসি মোহাম্মদ হাসান ইমাম জানান, ভুক্তভোগীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ইসলামী ব্যাংক দাগনভূঞা শাখা ও ফাজিলের ঘাট রোডের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজগুলো দেখে দুর্বৃত্তদের শনাক্তের চেষ্টা করছে। পুলিশ দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনতে সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।