মারা গেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল কুকুর ‘চিমস’

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৮ মাস আগে

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় মিম হিসেবে অতি পরিচিত কুকুর ‘বলটজ’ ওরফে ‘চিমস’। শুক্রবার (১৮ আগস্ট) অস্ত্রোপচারের সময় তার মৃত্যু হয়। ৬ মাস ধরে ক্যানসারে ভুগছিল চিমস। শনিবার (১৯ আগস্ট) চিমসের মালিক ইনস্টাগ্রামে দেওয়া একটি পোস্টে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

করোনাকালে সবাই যখন গৃহবন্দি, তখন অনেকের কাছেই বিনোদনের একমাত্র জায়গা ছিল সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। আর সেই জায়গায় অনেকেরই মন জয় করে নিয়েছিল চিমস। শিবা ইনু জাতের কুকুর ছিল সে।

মহামারী চলাকালে রীতিমতো ভাইরাল হয়ে ওঠে চিমস। তার গোল মুখ, সঙ্গে অদ্ভুত হাসি কোটি কোটি মানুষের মন জয় করেছিল। মূলত তার সত্যিকারের ছবি থেকে, অ্যানিমেটেড একটি ছবি ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ইনস্টাগ্রাম পোস্টে কুকুরটির মালিক লেখেন, চিমসের মৃত্যুতে আপনারা কেউ মন খারাপ করবেন না। বরং মনে করুন, সে আমাদের প্রত্যেককে কতটা আনন্দ দিয়েছে। কীভাবে সে করোনাকালে মানুষের মন ভালো রাখতে সাহায্য করেছে। বলটজ আকাশে নতুন বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সেখানেও নিশ্চয়ই ভালো ভালো খাবার খাচ্ছে সে।

জানা গেছে, গত ৬ মাস ধরে ক্যানসারে ভুগছিল চিমস। শেষ পর্যন্ত তার অস্ত্রোপচারের কথা ভাবা হয়। আর সেই টেবিলেই চিরনিদ্রায় ঢোলে পড়ে সে। যদিও এর আগে তাকে কেমোথেরাপি ও অন্যান্য চিকিৎসা দেওয়ার কথা ভাবা হয়েছিল। কিন্তু সবকিছুরই অনেকে দেরি হয়ে গিয়েছিল। তাই শেষ পর্যন্ত অস্ত্রোপারের সিদ্ধান্ত নেন পশু চিকৎসকরা। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হল না চিমসের।

চিমসের মালিক আরও জানান, চিকিৎসার জন্য বেশ কিছু টাকা তোলা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই টাকা বলটজের মালিকের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। ওই অর্থের অনেকটাই থেকে গিয়েছে। বেঁচে যাওয়া অর্থ তিনি স্থানীয় পশু চিকিৎসাকেন্দ্রে দান করবেন।

এদিকে, চিমসের মৃত্যুতে খবরে শোকের প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করেছে নেট দুনিয়ায়। প্রিয় মেম কুকুরের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন অসংখ্য নেটিজেন। অধিকাংশ নেটিজেন করোনাকালে বিনোদলাভে চিমসের অবদান স্মরণ করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

সূত্র: এনডিটিভি