মেঘনার মোহনায় পর্যটকদের মিলনমেলা

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

চাঁদপুর প্রতিনিধি : ঈদের আনন্দকে ভাগাভাগি করে নিতে চাঁদপুর বড় স্টেশন মোলহেডের তিন নদীর মোহনায় মেতে উঠেছেন পর্যটকরা। চাঁদপুরসহ পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জেলার পর্যটকরা সোমবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মোলেহেডে সময় কাটান। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের আগমনে সেখানে পরিণত হয়েছে এক মিলনমেলার।

পরিবার ও স্বজনরা ঈদ উপলক্ষে এক টুকরো প্রশান্তি খুঁজতে আসছেন মনোরম প্রকৃতির প্রবহমান মেঘনা পাড়ে। প্রতিদিনই সময় পেলে পর্যটকরা চলে আসছেন এখানে। চাঁদপুরের তিন নদীর মোহনায় এমন মনোরম দৃশ্য দেখা গেছে।

চাঁদপুরের মেঘনা, ডাকাতিয়া, আর পদ্মাকে ঘিরে রয়েছে শহরের বড় স্টেশন মোলহেড এলাকাটি।

সকাল থেকে হাজার হাজার দর্শনার্থীদের আগমনে মুখরিত হয়ে ওঠে মোলহেড এলাকা। ভ্রমণপিপাসুরা মনোরম এ স্থানটি স্বচক্ষে অবলোকনে এসে ভিড় জমায়। বিভিন্ন মানুষের উপস্থিতিতে সেখানে সৃষ্টি হয়েছে এক মিলনমেলার। অনেক পর্যটককে নিজস্ব ক্যামেরা কিংবা মুঠোফোনে বিভিন্ন রঙে-ঢঙে সেলফি তুলে আনন্দ উপভোগ করতে দেখা যায়।

জানা গেছে, সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নে পদ্মা, মেঘনা ও ডাকাতিয়া নদীর মিলনস্থলে অবস্থিত মেঘনার চর। এটি কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের মতো দেখা যাওয়ায় পর্যটকরা এর নাম দিয়েছেন ‘মিনি কক্সবাজার’।

এছাড়া চাঁদপুরের বঙ্গবন্ধু পার্ক, ফাইভ স্টার শিশু পার্ক, মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর পর্যটন কেন্দ্র, ফরিদগঞ্জের ডাকাতিয়ার পাড়, লোহগড়মঠ, রুপসা জমিদারবাড়িতে দর্শনার্থীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা জানান, কোরবানির কাজের ব্যস্ত থাকার পর এখানে এসে অনেক ভালো লেগেছে।  চাঁদপুরের মেঘনা নদীর বুকে এ স্থানগুলো অন্যরকম সুন্দর। তাই এখানে ঘুরতে এলাম।

চাঁদপুর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুর রশিদ জানান, ঈদ ঘিরে দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা দিতে শহরের বিভিন্ন স্থানে অতিরিক্ত মোবাইল টিম রয়েছে। এতে মানুষ নির্বিঘ্নে শহরে যাতায়াত ও ঘোরাফেরা করতে পারবে বলে আশা করছি।