যুবদল নেতা হত্যার ১২ বছর পর আসামি গ্রেপ্তার

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :
প্রকাশ: ২ মাস আগে

লক্ষ্মীপুরে যুবদল নেতা শিক্ষানবিশ আইনজীবী দিদারুল আলম হত্যার ১২ বছর পর মো. হিরন ভূঁইয়া নামে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
nagad-300-250

শুক্রবার রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
হিরন একই এলাকার ভূঁইয়া বাড়ির রফিক উল্যা ভূঁইয়ার ছেলে।

মামলা সূত্র জানায়, ২০১২ সালের ৩০ অক্টোবর জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবুল খায়ের ভূঁইয়া ও খালেদা জিয়ার সাবেক প্রধান নিরাপত্তা সমন্বয়কারী কর্ণেল (অবঃ) আবদুল মজিদের অনুসারীদের মধ্যে উত্তর হামছাদী ইউনিয়নের কালিবাজার এলাকায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওইদিন সংঘর্ষে দিদার নিহত হন।

এ ঘটনায় পরদিন দিদারের স্ত্রী রেহানা আক্তার বাদী হয়ে কর্ণেল মজিদসহ ২৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক এডভোকেট হাসিবুর রহমান বলেন, তখন পুলিশের তদন্তে চার্জশীট থেকে কর্ণেল মজিদের নাম বাদ পড়েছে । দিদার উপজেলা ছাত্রদলের সঙ্গে রাজনীতি করেছে। পরবর্তীতে যুবদলের পদ-পদবীতে এসেছে কি না তা আমার জানা নেই। দিদার হত্যা মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হত্যা মামলার আসামি হিরনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি থানা পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।