রংপুরে বেড়েছে আটা-ময়দা-চালের দাম

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

রংপুরে সবজির পাশাপাশি নতুন করে বেড়েছে আটা, ময়দার দাম। এছাড়া সপ্তাহের ব্যবধানে খুচরা বাজারে প্রকারভেদে চালের দাম কেজিতে ২-৩ টাকা বেড়েছে।

মঙ্গলবার (২৪ মে) নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, খুচরা বাজারে এক লিটার বোতলজাত সয়াবিন গত সপ্তাহের মতোই ১৯৮ এবং পাঁচ লিটারের বোতল ৭৮৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া খোলা সযাবিন বিক্রি হচ্ছে ২০০-২১০ টাকায়।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কিছুটা কমেছে। গত সপ্তাহে ১৬৫-১৭০ টাকায় বিক্রি হলেও মঙ্গলবার তা ১৫৫-১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া খুচরা পর্যায়ে পাকিস্তানি ও দেশি মুরগি আগের মতোই ২৮০-২৯০ ও ৪৯০-৫০০ এবং পাকিস্তানি লেয়ার ২৭০-২৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি টমেটো পাঁচ টাকা বেড়ে ৪৫-৫০, চিকন বেগুন ৫-১০ টাকা কমে ৫০, শসা পাঁচ টাকা বেড়ে ২০-২৫, শুকনা মরিচ ৩৫০ টাকা থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৪০০, কাঁচকলা হালি ১০ টাকা বেড়ে ৩০-৩৫, ঢেঁড়শ পাঁচ টাকা বেড়ে ৩০-৩৫, বরবটি ১০-১৫ টাকা বেড়ে ৩৫-৪০, পটল পাঁচ টাকা বেড়ে ৩৫-৪০, সজনে ১০-২০ টাকা বেড়ে ৯০-১০০, ঝিংগে গত সপ্তাহের তুলনায় পাঁচ টাকা বেড়ে ৩০-৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া আদা ও রসুন আকারভেদে ৮০-১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

কার্ডিনাল আলু গত সপ্তাহের তুলনায় এক থেকে দুই টাকা বেড়ে ১৫-১৬ এবং ঝাউ আলু পাঁচ টাকা বেড়ে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

সিটি বাজারের সবজি বিক্রেতা হোসেন আলী বলেন, বাজারে যখন যে সবজির আমদানি কম থাকে তখন তার দাম বাড়ে। কয়েকদিন আগে আমদানি বেশি থাকায় সজনে ৫৫-৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। এখন সেটা ৯০-১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।