রিকশাচালককে কুপিয়ে সারাদিনের রোজগার ছিনতাই

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৩ মাস আগে

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীতে ভাড়ার কথা বলে নির্জন স্থানে নিয়ে একজন রিকশাচালককে কুপিয়ে তার সঙ্গে থাকা সারাদিনের রোজগারের টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। ছিনতাইয়ের শিকার রিকশাচালকের নাম নবী হোসেন।

তিনি নোয়াখালীর সুধারাম থানার আন্ডারচর এলাকার আনিছুল হকের ছেলে। তিনি ফেনী পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড পাঠানবাড়ী রোডের পোড়া মসজিদ এলাকায় একটি কলোনিতে ভাড়া বাসায় থাকেন।

রোববার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার ফতেহপুর লেভেলক্রসিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা ওই রিক্সাচালককে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

ভুক্তভোগী রিকশাচালক ও স্থানীয়রা জানান, গত রোববার রাত ১১টার দিকে দুই যুবক ফেনী শহরের ট্রাঙ্ক রোড থেকে শহরের সালাহ উদ্দিন মোড়ে যাওয়ার কথা বলে একটি রিকশা ভাড়া নিয়ে তাতে চড়ে বসে। কিন্তু দুই যুবক ঐ স্থানে না নেমে রিকশাচালককে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার ফতেহপুর লেভেলক্রসিং এলাকায় নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর দুর্বৃত্তরা ছোরা ধরে ভয়ভীতি দেখিয়ে তার (চালক) সারাদিনের রোজগারের টাকা ছিনিয়ে নেয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুর্বৃত্তরা ঐ চালকের পিঠে ও হাতে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় বিষয়টি দেখে একজন গাড়িচালক ইমারজেন্সি এলার্ম বাজাতে শুরু করে। ঐ শব্দ শুনে দুই ছিনতাইকারী দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

রিকশাচালক নবী হোসেন দাবি করেন, ছিনতাইকারী তার সারাদিনের রোজাগারের দুই হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে গেছে।

ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. ইকবাল হোসেন ভূঁঞা দুর্বৃত্তের ছুরিকাহত একজন রিকশাচালককে হাসপাতালে ভর্তির সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, তার চিকিৎসা চলছে। তিনি এখন অনেকটা ভালো আছেন।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, ছিনতাইকারীদের হাতে একজন রিকশাচালক ছুরিকাহত ও টাকা ছিনতাইয়ের কথা শুনেছি। তবে এ ঘটনায় কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। তারপরও বিষয়টি তদন্ত করে দুর্বৃত্তদের আইনের আমনে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে।