লাকসামে অজ্ঞান পার্টির সাত সদস্য গ্রেপ্তার

নাসির উদ্দিন চৌধুরী ।।
প্রকাশ: ৯ মাস আগে

লাকসামে ৩টি চোরাই অটোরিক্সাসহ অজ্ঞান পার্টির ৭ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (২২মে) দুপুরে লাকসাম থানায় কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস্) খন্দকার আশফাকুজ্জামান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।
ব্রিফিংয়ে খন্দকার আশফাকুজ্জামান জানান, লাকসাম পৌরসভার বাতাখালী গ্রামের অটোরিকশা (মিশুক) চালক মোঃ দুলাল মিয়া ১৬ মে সন্ধ্যায় চৌদ্দগ্রামে যাত্রী নামিয়ে লাকসাম ফিরছিল। ফেরার পথে নাঙ্গলকোট থেকে চোর চক্রের (অজ্ঞান পার্টি) ৪ সদস্য যাত্রীবেশে ১২০ টাকায় তার রিকশা ভাড়া করে। পথিমধ্যে আমদুয়ার নামক স্থানে তারা চা-বিস্কুট খায়। এ সময় তাদের একজন রিকশাচালকে চা-বিস্কুট খাওয়ায়। পূনরায় রওয়ানা করে লাকসাম বাইপাস এলাকায় চালক অবচেতন হয়ে পড়লে এ চক্রের এক সদস্য গাড়ীর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে চালকের পকেটে থাকা নগদ সাড়ে ৪ হাজার টাকা ও বাটন মোবাইল ফোনটি নিয়ে নেয়। পরে তাকে খুন্তা স্টীল ব্রীজ সংলগ্নে অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে ব্যাটারী চালিত অটোরিকশাটি নিয়ে যায় ঐ চক্র। খবর পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় উপজেলার বিজরা এলাকা থেকে আন্তঃজেলা অজ্ঞান পার্টির দলনেতা মোঃ শাজাহানকে (২৬) আটক করে। সে চাঁদপুরের কচুয়া রহিমানগরের পনসাহী জাকির হোসেনের ছেলে। তার নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একটি দল কুমিল্লার বিভিন্ন উপজেলা, চট্টগ্রাম, চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় খাবারের সাথে ক্ষতিকর ওষুধ দিয়ে অচেতন করে মিশুক, অটোরিকশা চালকদের সর্বস্ব লুটে নেয়। পরে তার দেয়া তথ্য মতে, রোববার (২১ মে) রাতে চান্দিনার মাধাইয়া, মুরাদনগরের নলুয়া চৌমুহনী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩টি ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা, একটি বাটন মোবাইল ফোনসহ অজ্ঞান পার্টির সদস্য চাঁদপুর রহিমানগরের মিজানুর রহমান (৩১), মাধাইয়ার নুর ইসলাম (২৪), কুমিল্লা টমসম ব্রীজ ইয়াসিন মার্কেটের মোঃ মিজান, মুরাদনগরের নহল এলাকার মোঃ হানিফ (৩২), বড়ইয়াকুড়ির শিপন মিয়া (২৩), চান্দিনা নাওতলার সুমন আহমেদকে (২৫) আটক করা হয়।
প্রেসব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন, সহকারী পুলিশ সুপার (চোদ্দগ্রাম সার্কেল) জাহিদ হাসান, লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ, ওসি (তদন্ত) মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন, মাকসুদুর রহমান, হাবিবুর রহমান, আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ।