সোয়া দু’ বছর পর চালু হলো বিবিরবাজার স্থল বন্দর

# ফিরছে প্রানচাঞ্চল্য
স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ মাস আগে

করোনার প্রাদুর্ভাবের কারনে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিলো কুমিল্লা বিবিরবাজার স্থল বন্দর। দু’বছর তিন মাস চৌদ্দ দিন পর বন্দর দিয়ে ভারত বাংলাদেশ মানুষজন আসা যাওয়া শুরু হয়েছে।

বিবিরবাজার স্থল বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা ( চলতি দায়িত্ব) হারাধন চন্দ্র পাল জানান, করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় ২০২০ সালের ১৪ মার্চ ভারত- বাংলাদেশে সাধারণ মানুষের যাতায়াত বন্ধ ঘোষনা করা হয়। পরে দীর্ঘ দুই বছর পর বানিজ্য মন্ত্রণালয়ের সুপারিশে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আদেশে গত ২৭ জুন সোমবার থেকে বন্দর খুলে দেয়ার আদেশ পাই।

তবে গত দুই বছর সাধারণ মানুষজনের যাতায়াত বন্ধ থাকলেও আমদানি রপ্তানি স্বাভাবিক ছিলো। বাংলাদেশ থেকে নিয়মিত সিমেন্ট যেতো। ভারত থেকে পেয়াজ আঁদাসহ ৩৮ পন্য বাংলাদেশে প্রবেশ করতো। তবে তা পরিমানে কম ছিলো।

বিবিরবাজার ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা আবদুল হামিদ জানান, গত সোমবার ও মঙ্গলবার দুই দিনে ভারত থেকে ২৫ জন বাংলাদেশে আসে। বাংলাদেশ থেকে ৫ জন ভারতে যান।

মঙ্গলবার বিকেল ৫ টার দিকে বিবিরবাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায় বন্দর খোলার বিষয়টি এখনো অনেকে জানেন না বলে বন্দর এলাকায় এখনো অনেকটা সুনশান নিরবতা লক্ষ্য করা গেছে।

ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা আবদুল হামিদ আশাবাদ ব্যক্ত করেন আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বন্দরজুড়ে চাঞ্চল্য শুরু হবে।

বন্দরে গিয়ে দেখা যায় বাংলাদেশ থেকে ভারত যাওয়ার জন্য ইমিগ্রেশনে আনুষ্ঠানিকতা সারছেন প্রদীপ দত্ত।

প্রদীপ জানান, ভারতের আগরতলায় আত্মীয় স্বজন আছেন। বন্দর খুলে দেয়ায় স্বজনদের দেখতে যাচ্ছেন। মুখে হাসি ফুটিয়ে প্রদীপ বলেন, অনেক দিন পর যাচ্ছি। এখন সবার সাথে দেখা হবে। খুব আনন্দ লাগছে।

বন্দর এলাকায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা নিয়ে যাত্রীর জন্য অপেক্ষা করছেন বেশ কয়েকজন চালক। তাদের একজন অটোরিকশা চালক মোঃ ইয়াসিন। ভারত থেকে আসা লোকজনকে জিজ্ঞেস করছেন কে কোথায় যাবেন।

ইয়াসিন জানান, বন্দর এলাকায় তার বাড়ি। দুই বছর এই বন্দর দিয়ে যাত্রী আসা যাওয়া বন্ধ ছিলো বলে শহরের ভেতর অটোরিকশা চালাতেন। এখন থেকে বন্দর থেকে যাত্রী নিয়ে শহরে যাবেন।