স্ত্রীর মুখে লাথি চুলধরে টানা হেঁচড়ার ভিডিও ভাইরাল

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

কুমিল্লার দেবিদ্বারে স্ত্রীকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হলে স্বামী শাহাদাত হোসেনকে (২৮) আটক করেছে দেবিদ্বার থানা পুলিশ। সে এলাহাবাদ ইউনিয়নের হারস্বার গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে। তাকে সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ৩ লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে রাজমিস্ত্রি মোঃ শাহাদাত হোসেন তার স্ত্রী ৩ সন্তানের জননী রুজিনা আক্তারকে (২২) প্রতিনিয়ত নির্যাতন করে আসছিল। রবিবার সকালে নিজ বাড়ির পাশের একটি দোকানের সামনে প্রকাশ্যে দিনের বেলায় বেত্রাঘাত, চড়, থাপ্পড়, মুখে লাথি মেরে এবং চুলধরে টানা হেঁচড়া করে। ওই সময় এক ফেসবুক ব্যবহারকারী ৫৫ মিনিটের একটি ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার আইডি থেকে আপলোড করলে তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। বিষয়টি দেবিদ্বার থানা পুলিশের নজরে এলে এলাহাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের সহযোগিতায় মোঃ শাহাদাত হোসেনকে রোববার বিকেলে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ কমল কৃষ্ণ ধর জানান, নারী নির্যাতনের ভিডিওটি দেখার পর স্থানীয় চেয়ারম্যানের সহায়তায় নির্যাতনকারী স্বামী মোঃ শাহাদাত হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। নির্যাতিতা রুজিনা আক্তারকে চিকিৎসার ব্যাবস্থা করি। রুজিনা আক্তার বাদী হয়ে মোঃ শাহাদাত হোসেনকে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। তাকে সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।