স্যাটেলাইটের ছবি: বন্যায় কী ভয়ংকর দশা পাকিস্তানের

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৪ সপ্তাহ আগে

ভয়াবহ বন্যায় বিপর্যস্ত পাকিস্তান। এরই মধ্যে এতে প্রাণ হারিয়েছেন ১১শর বেশি মানুষ, যার মধ্যে ৩৮০টি শিশুও রয়েছে। তলিয়ে গেছে বিপুল পরিমাণ ফসল। এখনো পানিবন্দি কয়েক কোটি মানুষ। দেশটির ইতিহাসে সাম্প্রতিক সময়ের ভয়ংকরতম এই বন্যার আগে ও পরের কিছু দৃশ্য ধরা পড়েছে স্যাটেলাইটের ছবিতে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে প্রকাশিত একটি ছবিতে রোজান শহরের কাছে গত ২৪ মার্চ বন্যার আগে দৃশ্য ও ৩০ আগস্ট বন্যার পরের তুলনামূলক চিত্র দেখা গেছে।

ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় পাকিস্তানের দক্ষিণ ও পশ্চিমাংশে বহু মানুষ উঁচু মহাসড়ক ও রেললাইনের ওপর আশ্রয় নিয়েছেন।

স্যাটেলাইটের ছবি: বন্যায় কি ভয়ংকর দশা পাকিস্তানের

কয়েক বছর ধরেই অর্থনৈতিক সংকটে ভুগছে পাকিস্তান। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ কমে তলানিতে পৌঁছেছে। সংকট কাটাতে বাড়তি ঋণের জন্য আন্তর্জাতিক দাতাদের কাছে ধর্না দিতে হচ্ছে তাদের। এর মধ্যেই এমন প্রাকৃতিক দুর্যোগ পাকিস্তানিদের ওপর নতুন বিপদ ডেকে এনেছে।

প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ এটিকে ‘পাকিস্তানের ইতিহাসে ভয়াবহতম বন্যা’ বলে উল্লেখ করেছেন। বলেছেন, এতে ক্ষতিগ্রস্ত অবকাঠামো সংস্কারে অন্তত এক হাজার কোটি মার্কিন ডলার দরকার হবে।

স্যাটেলাইটের ছবি: বন্যায় কি ভয়ংকর দশা পাকিস্তানের

পাকিস্তানকে সহায়তার জন্য গত মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) ১৬ কোটি ডলারের জরুরি তহবিল সংগ্রহে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব দিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এক বিবৃতিতে বলেছেন, পাকিস্তান দুর্ভোগে ডুবে রয়েছে।

স্যাটেলাইটের ছবি: বন্যায় কি ভয়ংকর দশা পাকিস্তানের

বন্যায় গত জুন থেকে এ পর্যন্ত ১ হাজার একশ ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত এক দশকের মধ্যে দেশটিতে এত ভারি বৃষ্টি হয়নি। এ বিপর্যয়ের জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকেই দায়ী করছে পাকিস্তান সরকার।

স্যাটেলাইটের ছবি: বন্যায় কি ভয়ংকর দশা পাকিস্তানের

দেশটির জলবায়ুবিষয়ক মন্ত্রী শেরি রেহমান বলেছেন, পাকিস্তানের এক-তৃতীয়াংশ এই মুহূর্তে পানির নিচে। অতীতের প্রতিটি সীমা, প্রতিটি রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে এবারের বন্যা। এর আগে কখনো এমন পরিস্থিতি দেখেননি তারা।

কর্মকর্তাদের ধারণা, ৩ কোটি ৩০ লাখের বেশি পাকিস্তানি নাগরিক এবারের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।