২০১৯ সাল থেকেই নতুন শিক্ষাক্রমের প্রস্তুতি নিচ্ছি: শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ মাস আগে

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আগামী বছর থেকে প্রথম-দ্বিতীয় ও ষষ্ঠ-সপ্তম শ্রেণিতে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হবে। সেই শিক্ষাক্রমে আমরা সবকিছু শেখার জায়গায় নিয়ে যাচ্ছি। এটির একটি প্রস্তুতি হিসেবে আমরা ২০১৯ সাল থেকেই শুরু করেছি। তখন থেকেই প্রকল্পভিত্তিক শিক্ষায় বেশকিছু কাজ করেছি।

শুক্রবার রাজধানীর ধানমন্ডির ডব্লিউভিএ মিলনায়তনে রেডিয়েন্ট বনসাই সোসাইটি আয়োজিত ‘১২তম বার্ষিক বনসাই প্রদর্শনী’ উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনে ছয় ঋতুর ছন্দ হারিয়ে গেছে। সেটা ফিরিয়ে আনতে ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করতে প্রত্যেককে বছরে অন্তত একটি করে গাছ লাগাতে হবে।

তিনি আরো বলেন, সারাদেশে এখন গাছ লাগানোর একটা চর্চা হচ্ছে। গাছের পরিচর্যাও ভালো অভ্যাস। শরীর ও মনের জন্য ভালো। আমরা সবুজকে ভালোবাসবো, সারাদেশে সবুজের বিস্তৃতি ঘটাবো। গাছ স্বাস্থ্যের জন্য দরকার, পরিবেশের জন্য দরকার।

দীপু মনি বলেন, পুরো বিশ্বে এই জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে শীতকাল ছোট হয়ে গেছে। বর্ষা এলোমেলো আর গ্রীষ্ম ভীষণভাবে চেপে বসেছে আমাদের ওপর। এই জলবায়ু পরিবর্তন কারো জন্যই ভালো না। সারা পৃথিবীতে খাদ্য উৎপাদন ব্যাহত হবে, নানা ধরনের রোগবালাই হবে। আগে ঋতুর সঙ্গে যে ছন্দটা ছিলো সেই ছন্দ পতন ঘটছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা যেন আগের অবস্থায় ফিরে যেতে পারি, খারাপ দিকে না যাই। এজন্য গাছের যত্ন নিতে হবে, সবুজের বিস্তৃৃতি ঘটাতে হবে। যারা বড় আকারের প্রকৃতিকে ঘরের মধ্যে নিয়ে আসার নান্দনিকতার চর্চা করেন তাদের প্রতি শুভকামনা। বনসাই বাংলাদেশে শিল্প হিসেবে শক্ত অবস্থানে দাঁড়িয়ে যাবে।

তিন দিনব্যাপী এ বনসাই প্রদর্শনী চলবে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত। এতেতে বিভিন্ন প্রজাতির বনসাই প্রদর্শন করা হচ্ছে। এখান থেকে দর্শনার্থীরা ১ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত মূল্যের বনসাই কিনতে পারবেন।