বৃহস্পতিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
ছিঁচকে চুরি, সাগর চুরি আর পিনাটতত্ত্বএকান্ত সাক্ষাৎকার আধুনিক পৌরসভা গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়রহাজীগঞ্জে আমড়া খাওয়ার জন্য প্রাণ দিল আরফাকুমিল্লায় স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামী-শ্বশুর গ্রেফতারবরুড়ায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণসভা‘বাংলাদেশের শত্রু বাংলাদেশই’সাকিবদের সামনে আফগান চ্যালেঞ্জআফগানিস্তান ম্যাচের আগে হঠাৎ দলে আবু হায়দারপ্রবাসীদের লাশ টাকার অভাবে বিদেশে পড়ে থাকবে না, লাশ আসবে সরকারি খরচে: অর্থমন্ত্রীকুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন- আয়তন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ৭ বছর ধরে ঝুলে আছে মন্ত্রনালয়েধর্ষণদৃশ্য দেখানোর অপরাধে টিভি চ্যানেলকে জরিমানাজোড়া লাগছে তাহসান-মিথিলার সংসার!মাহমুদউল্লাহদের ১৯৩ রানের টার্গেট দিলেন সাকিবরাবড় সংগ্রহের পথে ঢাকাজাজাইয়ের ব্যাক টু ব্যাক ঝড়ো ফিফটি, উড়ছে ঢাকাঢাকা বনাম খুলনার খেলা দেখুন সরাসরিটসে সাকিবকে হারালেন মাহমুদউল্লাহডিআরএস নিয়ে প্রশ্নঘুরে দাঁড়ানোর আশায় সিলেটস্থানীয় তরুণদের ওপর চোখ নির্বাচকদের

‘৮০ টাকার আদা ১৬০ টাকা কেন?’

খুচরা বাজারে এখন ৮০ টাকার আদা ১৬০ টাকা, অর্থাৎ দ্বিগুণ দাম কেন? মাত্র ১৫ দিনে এটা বেড়ে দ্বিগুণ হলো কেন? ব্যবসায়ীদের প্রতি এমন প্রশ্ন রেখেছেন বাণিজ্য সচিব মো. মফিজুল ইসলাম।

মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি-সংক্রান্ত পর্যালোচনা ও গত রোজায় পণ্য সহনীয় পর্যায়ে থাকায় ব্যবসায়ীদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে এ প্রশ্ন রাখেন তিনি। এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি উপস্থিত ছিলেন।

আদা ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে সচিব বলেন, যে পরিমাণ আদার চাহিদা আছে, আপনারা সেই পরিমাণ আমদানি করেন। আমরা সব ধরনের সহযোগিতা দেব। কোনোভাবেই যাতে আদার মূল্যবৃদ্ধি না পায়।

এ প্রশ্নের প্রেক্ষিতে বাবুবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও আড়তদার আনোয়ার হোসেন বলেন, আমরা যেসব দেশ থেকে বিশেষ করে ভারত, চীন মিয়ানমার থেকে আদা আমদানি করি, সেসব দেশে এবার উৎপাদন কম হয়েছে। ফলে এবার আদার দাম বেশি থাকবে।

এ বিষয়ে মফিজুল ইসলাম বলেন, ‘নো, যে পরিমাণ দরকার, তা বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করেন। একসঙ্গে সব দেশে উৎপাদন কম হয়েছে এটা বিশ্বাসযোগ্য নয়। পর্যাপ্ত আদা আমদানি করতে হবে, যাতে কোনোভাবেই আদার দাম না বাড়ে।’

এ সময় ব্যবসায়ী সমিতির এই নেতা বলেন, মিয়ানমার থেকে আমরা দুটি পথে আদা আমদানি করি। একটা চট্টগ্রাম পোর্ট, আরেকটা টেকনাফ দিয়ে। টেকনাফ দিয়ে আমরা সরাসরি আমদানি করতে পারি না। এ পথ মিয়ানমারের লোকজন নিয়ন্ত্রণ করে। কয়েক ধাপে আমাদের পয়সা খরচ করে আদা আনতে হয়। ফলে আদার দাম বেশি পড়ে যায়। তবে আদার দাম আর যাতে না বাড়ে, সে চেষ্টা করা হবে বলে জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *