শনিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
কিশোর গ্যাং: ‘বড়ভাইদের’ হাত ধরে বিপথগামী কিশোররা বরগুনায় আর নতুন গ্যাং তৈরির সুযোগ হবে না -এসপি মারুফ হোসেনইউরোপের সবচেয়ে বড় মসজিদ উদ্বোধন রাশিয়ায়আমাজন পোড়ার নেপথ্যে সোনা?জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস, কেমন ঝুঁকির মুখে বিশ্ববিপর্যয়ে পৃথিবীর ‘ফুসফুস’পুড়ে ছাই আমাজনে সেনা মোতায়েনপুড়ে ছাই হচ্ছে ‘পৃথিবীর ফুসফুস’পরিবেশ রক্ষার্থে একদিন পর পর মলত্যাগের পরামর্শ২০ বছরে ২০ লাখ গাছ লাগিয়ে মরুভূমিকে অরণ্য বানালেন এই দম্পতিঅবিশ্বাস্য! টি-টোয়েন্টিতে প্রথমে সেঞ্চুরি, পরে ৪ ওভারে ৮ উইকেটক্রিকেটার শ্রীশান্তের বাড়িতে আগুন, অল্পের জন্য রক্ষা স্ত্রীরকুমিল্লায় ট্রেনে কাটা পড়ে দুই শিক্ষার্থী নিহত সেতুকে বাঁচাতে গিয়ে কাটা পড়ে আদিত্যকুমিল্লায় সেরা বাগানীদেরকে সম্মাননাকুবির ক্যাফেটেরিয়ার খাবারে টিকটিকি!রিফাত হত্যা মামলার চার্জশিট ৩ সেপ্টেম্বরমিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না: হাইকোর্টমিন্নির জামিন শুনানি ফের উঠছে হাইকোর্টেমিন্নির জবানবন্দির বিষয়ে জানতে চান হাইকোর্টহাইকোর্টের আরেক বেঞ্চে মিন্নির জামিন শুনানি আজকুমিল্লায় ট্রেনে কাটা পড়ে প্রেমিক-প্রেমিকা নিহত

‘আমরা অভ্যন্তরীণভাবে বলেছি, প্রিয়া ট্রাম্পের কাছে বলেছেন’

বাংলাদেশ থেকে ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান উধাও হয়ে গেছে- যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা এমন অভিযোগ করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

প্রিয়া সাহার এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ করেছে সম্প্রীতি বাংলাদেশ এবং হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট নামে দুটি ধর্মীয় সংগঠন। রোববার (২১ জুলাই) সম্প্রীতি বাংলাদেশ ও সোমবার (২২ জুলাই) হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট এ প্রতিবাদ জানায়।

সোমবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে হিন্দু-বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এক সংবাদকর্মী জানতে চান, ৩ কোটি ৭০ লাখ লোক বাংলাদেশ থেকে উধাও হয়েছে-প্রিয়া সাহা এই বক্তব্য প্রথম দিল, নাকি অতীতে আপনারা এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছিলেন?

এর জবাবে নির্মল রোজারিও বলেন, ‘না। এই ধরনের বক্তব্য অতীতে আমাদের পক্ষ থেকে বলা হয় নাই।’

এরপর তিনি বলেন, ‘তবে (অর্থনীতিবিদ) আবুল বারাকাত তার কিছু প্রকাশনায় বলেছিলেন, ১৯৪৭ সালে সংখ্যালঘুর পরিমাণ ছিল ২৯ দশমিক ৭ শতাংশ। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় এর হার ২১ থেকে ২২ শতাংশ ছিল। সর্বশেষ ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু জনসংখ্যা ৯ দশমিক ৭ শতাংশ। এটা আমরা অভ্যন্তরীণভাবে বলেছি, কিন্তু বাইরে প্রকাশ হয় নাই। যেটা প্রিয়া বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে।’

সম্প্রতি হোয়াইট হাউসে এক অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রিয়া সাহা বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। সেখানে ৩৭ মিলিয়ন (৩ কোটি ৭০ লাখ) হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান উধাও হয়ে গেছে। এখনো সেখানে ১৮ মিলিয়ন (১ কোটি ৮০ লাখ) সংখ্যালঘু জনগণ রয়েছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা আমাদের দেশ ত্যাগ করতে চাই না। আমি আমার ঘর হারিয়েছি, আমার জমি নিয়ে গেছে। আমার ঘরবাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। কিন্তু সেসবের কোনো বিচার নেই।’

প্রিয়া সাহাকে ট্রাম্প জিজ্ঞাসা করেন, ‘এসব কারা করছে?’ জবাবে প্রিয়া সাহা বলেন, ‘উগ্রবাদী মুসলিমরা এই কাজ করছে। সবসময় তারা রাজনৈতিক প্রশ্রয়ে এই কাজ করে।’

এই সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস-চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া, হিন্দুধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত পালসহ সংগঠন দুটির অন্য নেতাকর্মীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *