সংবাদ শিরোনাম
সোমবার, ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
দেশে কোন বাক স্বাধীনতা নেই- হাজী ইয়াছিনক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি বন্ধের দাবি বুয়েট শিক্ষার্থীদেরফাহাদ হত্যায় জড়িত ছাত্রলীগ নেতাদের ফাঁসির দাবিতে উত্তাল বুয়েটইস্কনের সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক নেই, এটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন: লেখক ভট্টাচার্যআবরার হত্যার প্রতিবাদে ছাত্রদলের দু’দিনের কর্মসূচি ঘোষণাবুয়েট ছাত্র ফাহাদের জীবনের শেষ অঙ্ক ফেসবুকে ভাইরালক্যাসিনো-দুর্নীতির শেষ দেখে ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রীঐতিহ্যবাহী সোনারগাঁওয়ের বিশ্ব কারু’শিল্প শহরের মর্যাদা লাভপাপের ভারে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাচ্যুত হবে: কর্নেল অলিওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন জয়নাল হাজারী৬ ঘণ্টা ধরে নির্যাতন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড: আবরারের বাবাসম্রাটদের সঙ্গে শোভন-রাব্বানীরও গ্রেফতার চান মওদুদক্যাম্পাসে ছাত্রদল-শিবিরকে নির্যাতন সহ্য করা হবে না: ডাকসু ভিপিপারিবারিক কবরস্থানে চিরঘুমে আবরারআবরার হত্যার বিচার দাবিতে সকাল থেকেই বিক্ষোভে উত্তাল বুয়েটকুষ্টিয়ায় নিজ এলাকায় ফাহাদের ২য় জানাজা সম্পন্নছাত্রলীগের তদন্ত কমিটি আবরারকে সবচেয়ে বেশি মারধর করেন মদ্যপ অনিকফাহাদকে হত্যায় ১৯ জনকে আসামি করে মামলা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ গ্রেফতার ১০, সংগঠন থেকে স্থায়ী বহিষ্কার ১১ : হত্যা মামলায় আসামি ১৯ * শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন * রক্তমাখা স্টাম্প, লাঠি, চাপাতি ও ভিডিও ফুটেজ উদ্ধার * ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়াই কালদেশের পক্ষে কথা বললে সে শিবির হবে, এটা কেমন কথা?হত্যা নয় অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু বলছে বুয়েট প্রশাসন

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন- আয়তন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ৭ বছর ধরে ঝুলে আছে মন্ত্রনালয়ে

স্টাফ রিপোর্টার।। দেশের প্রাচীন জেলা সদরের মধ্যে অন্যতম প্রাচীন শহর হলো কুমিল্লা।১৮৬৮ সালে এ শহরটি পৌরসভার স্বীকৃতি লাভ করে। প্রতিষ্ঠার ১৪৪ বছর পর ২০১১ সালের ১০ জুলাই এটি কুমিল্লা ৫৩.০৪ বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে দেশের অষ্টম সিটি কর্পোরেশন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। কুমিল্লা পৌরসভার ১৮টি ওয়ার্ডের সাথে যোগ হয় সদর দক্ষিন পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড। এই ২৭টি ওয়ার্ড নিয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন যাত্রা শুরু করলেও নগরীর লাগায়ো আরো ৯৬.৯৬ বর্গকিলোমিটার এলাকাকে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের সাথে সম্প্রসারিত করার একটি প্রস্তাব পাঠানো হয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে। কিন্তু সিটি কর্পোরেশন থেকে একাধিক বার উদ্যোগ নেওয়া হলেও মন্ত্রনালয়ের সিদ্ধান্তহীনতার কারণে সম্প্রসারিত হতে পারছে না কুসিক। কুসিক বর্ধিত হওয়ার ফাইলটি গত ৭ বছর ধরে আটকে আছে। কুমিল্লা শহরের অবশিষ্টাংশ সিটি কর্পোরেশনের সাথে সংযুক্ত না হওয়াতে নানা সমস্যাও দেখা দিয়েছে মুল সিটিতে।
কুমিল্লা নগরীর অতীব গুরুত্বপূর্ণ অনেক স্থাপনা,অফিস, প্রতিষ্ঠান ও এলাকা সিটি করপোরেশনের বাইরে রয়েছে। সেগুলো হচ্ছে- দক্ষিণ বাংলার অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজের ডিগ্রি শাখা, কুমিল্লা শহরের অন্যতম প্রধান বাস টার্মিনাল শাসনগাছা বাসটার্মিনাল, রেলস্টেশন, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল প্রভৃতি। সমগ্র সিটি করপোরেশনের বর্তমান এলাকা ৫৩.০৪ বর্গকিলোমিটারের সঙ্গে ও তার পার্শ্ববর্তী ৯৬.৯৬ বর্গকিলোমিটার প্রস্তাবিত এলাকা নির্দিষ্ট করে অনেক আগেই মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে।
কুমিল্লা শহরের মধ্যে অবস্থিত এই গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা গুলো সিটি কর্পোরেশনের অর্ন্তভুক্ত না হওয়ায় নানাবিধ সমস্যা মোকাবেলা করতে হচেছ নগরীর নাগরিকদের। কারণ, দেখা যাচ্ছে সিটি কর্পোরেশনের আওতায় পড়ায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মূল রাস্তার অর্ধেক কাজ হচ্ছে আর অর্ধেক কাজ বাকী পড়ে আছে। এই অংশের ময়লা গুলো কর্পোরেশনের সেবকরা নিয়ে যাচ্ছে কিন্তু অপর অংশের ময়লা গুলো ইউনিয়নের মধ্যে পড়ায় রাস্তায় পড়ে আছে। ফলে নগরীর সার্বিক পরিবেশের উপর বিরুপ প্রভাব পড়ছে। সিটি করপোরেশনের আওতায় না থাকার কারণেই এই সমস্যা মোকাবেলা করতে হচ্ছে বলে জানিয়েছে কুসিক কর্তৃপক্ষ।
একই শহরের মধ্যে অবস্থিত হলেও শুধু মাত্র কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ঘোষণার পর সে সব এলাকা করপোরেশনের আওতাভুক্ত না হওয়ায় নাগরিক সুবিধার আওতায় আসতে পারেনি তারা। এতে অসংখ্য মানুষ নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কর পাচ্ছে না সিটি করপোরেশন। ২০১২ সালে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে আয়তন বৃদ্ধির আবেদন জানানো হলেও ৭ বছরে মন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত আসেনি।
সমগ্র সিটি করপোরেশনের বর্তমান এলাকা ৫৩.০৪ বর্গকিলোমিটারের সঙ্গে ও তার পার্শ্ববর্তী ৯৬.৯৬ বর্গকিলোমিটার প্রস্তাবিত এলাকা নির্দিষ্ট করা হয়েছে। প্রস্তাবিত এলাকা বর্তমান এলাকার সঙ্গে সংযুক্ত হলে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের আয়তন হবে ১৫০ বর্গকিলোমিটার। ২০১১ সালের ১০ জুলাই কুমিল্লা পৌরসভার ১৮টি ওয়ার্ড এবং পাশের কুমিল্লা সদর দক্ষিণ পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন গঠন করা হয়।

বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি ও দৈনিক নিউএজ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ইয়াসমিন রীমার বাসা কুমিল্লা শহরের শাসনগাছা বাসটার্মিনাল সংলগ্ন এলাকায়। তিনি বলেন, শাসনগাছা বাসটার্মিনালসহ আবাসিক এলাকা নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। তবে সিটি করপোরেশনের বাইরে হওয়ায় এই এলাকার বাসিন্দারা জলাবদ্ধতা ও আবর্জনা অপসারণের সমস্যায় ভুগছে। নগরীর পশ্চিম অংশের বাসিন্দা কলেজ শিক্ষক অধ্যাপক কামাল হোসেন বলেন, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার উত্তর ও দক্ষিণ দুর্গাপুর ইউনিয়নের অনেক এলাকা সিটি করপোরেশনের আওতায় আনা উচিত। এখানে অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। এছাড়া সিটি করপোরেশন ও ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী হওয়ায় অনেক এলাকার রাস্তা সংস্কারের কাজও আটকে থাকে।
সচেতন নাগরিক কমিটি সনাক কুমিল্লার সভাপতি বদরুল হুদা জেনু বলেন, আয়তন কম থাকায় নগরীতে এখন ঘিঞ্জি পরিবেশ বিরাজ করছে। কিছুদিনের মধ্যে কুমিল্লা বিভাগ হচ্ছে, বিভাগের কাজের সুবিধার্থে নগরীর আয়তন আরও বাড়ানো প্রয়োজন।
কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ব্লাষ্ট কুমিল্লার সভাপতি এড. সৈয়দ নুরুর রহমান বলেন, শুরুতে বিদ্যামান থাকা দুটি পৌরসভাকে এক করে সিটি কর্পোরেশন করেছে তখনকার জন্য এটা ঠিক ছিল। কিন্তু এখন আর সিটির বর্তমান আয়তন দিয়ে সিটিকে পরিবেশ বান্ধব রাখা সম্ভব না। কারণ, যেই প্রতিষ্ঠান গুলো সিটিতে রয়েছে কিন্তু কর্পোরেশন এলাকায় এগুলো অর্ন্তুভুক্ত না থাকার কারণে ঐ এলাকার বর্জ গুলো কর্পোরেশন এলাকায় পড়ছে। ফলে দূর্গন্ধসহ নানা রোগ ব্যাধি ছড়াচ্ছে কর্পোরেশন এলাকায়ও। সুতরাং দ্রুত প্রস্তাবিত সম্প্রসারিত এলাকাকে সংযুক্ত করা হোক।
বিশিষ্ট মানবাধীকার সংগঠক ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন বাপা কুমিল্লার আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর মাসুম বলেছেন, ২০১১ সালে যে সিটি কর্পোরেশন গড়ে উঠেছিল তা আর এখন নেই। এমনিতে স্বাভাবিক কারণেই তো এর আকার বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধিসহ সব কিছুতেই গত ৮ বছরে বেড়েছে। কুমিল্লা শহরের প্রধান যে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ন বেশ কয়েকটিই সিটি কর্পোরেশনের বাহিরে পড়ে আছে। ফলে নগরীর আধুনিক সুযোগ সুবিধা গুলো থেকে তারাই যে বঞ্চিত হচ্ছে তা নয়। তাদের এই সুবিধা না পাওয়ার প্রভাব নগরীর পরিবেশেও পড়ছে। তাই গত ৭ বছর ধরে মন্ত্রনালয়ে পড়ে থাকা সম্প্রসারনের ফাইলটি দ্রুত ওপেন করা হোক।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনকে পরিকল্পিতভাবে গড়ে তোলার জন্য আয়তন বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। দ্বিগুণ আয়তন বাড়ানোর বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে আবেদন জানানো হয়েছে।আশা করি আয়তন বাড়লে সব দিক থেকেই উপকৃত ও লাভবান হবেন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *