সংবাদ শিরোনাম
শুক্রবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং | ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
মেঘনায় পুলিশের ধাওয়া খেয়ে নদীতে পড়ে মাদক ব্যবসায়ীর মৃত্যুকুমিল্লায় মডেল ইউনিয়ন পরিষদে সনাকের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিতকুমিল্লায় দুই বছরের সাজা প্রাপ্ত আসামী গ্রেফতারকুমিল্লায় বাংলা বানান শুদ্ধিকরণ অভিযানকুমিল্লার হোমনায় পূর্ব শত্রুতার জেরে যুবককে কুপিয়ে হত্যানববধূ অপহরণ চেষ্টার মামলায় ছাত্রলীগ নেতা ইসমাইল গ্রেফতারস্কুল ছাত্রকে মেরে বালু চাপা দেয়ার মামলায় দুই আসামি কারাগারেকুমিল্লায় ৩ দিন ব্যাপী বই মেলা শুরুঅপসংস্কৃতি বর্জন ও দেশীয় সংস্কৃতি চর্চায় শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করতে হবে ————এড.টুটুলচৌদ্দগ্রামে গৃহবধু হত্যা মামলার আসামীসহ গ্রেফতার ১৩ট্রাক্টরের চাপায় কুমিল্লায় শিশু নিহতবিএনপি নেতা কর্নেল আজিমের বড় ভাইয়ের ইন্তেকালমুরাদনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ, নিষ্ক্রিয় বিএনপিহোমনার ১৫০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহিদ মিনার নেই!কুমিল্লায় ভাতিজার চাপাতির কোপে চাচার মৃত্যুকুমিল্লায় এক ছাত্রকে বালু চাপা হত্যার পর মুক্তিপন নিতে এসে অপহরণকারী আটককুমিল্লায় বিজিবির অভিযানে বিপুল পরিমান মাদক আটকসরকারি হাসপাতালের ওষুধের অবৈধ গোডাউনে র‌্যাবের অভিযানসংসদ নির্বাচনের মতো সিটি নির্বাচনেও একই পরিবেশ থাকবে : সিইসিহোমনায় আপন দুই ভাইসহ সাত জনের কারাদন্ড

কুমিল্লা ৮ – বরুড়ায় হ য ব র ল আওয়ামীলীগ-মহাজোট

স্টাফ রিপোর্টার।।


১৫টি ইউনিয়ন ,১টি পৌরসভা ও ১টি উপজেলা মিলে কুমিল্লা-৮ (বরুড়া) সংসদীয় আসন। এখানে আওয়ামীলীগ তিন ধারায় বিভক্ত। তার উপর রয়েছে এখানকার বর্তমান এমপি জাতীয় পার্টির অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। এখানে জাপা-আওয়ামীলীগ সাপে নেউলে সম্পর্ক। এই আসন থেকে নির্বাচন করার জন্য ইতিমধ্যে আওয়ামীলীগের একাধিক প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। তারা এবার আসনটি কোন ভাবেই জাপাকে দিতে চায় না। অপর দিকে, কুমিল্লার ১১টি আসনের মধ্যে জাপা এখানে কিছুটা শক্তিশালী এবং তারা যে কোন ভাবেই এখানে মহাজোটের প্রার্থী হতে চায়।
কুমিল্লা-৮ ( বরুড়া ) সংসদীয় আসন থেকে আওয়ামীলীগ জয়লাভ করেছে ৪ বার, বিএনপি ৪ বার ও জাতীয় পার্টি ২ বার। এ সংসদীয় আসনে আওয়ালীগ এখন ত্রি-ধারায় বিভক্ত। এক গ্রুপে নেতৃত্ব দি”েছন সাবেক এমপি ও উপজেলা আওয়ামীলীগ আহবায়ক নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল। আরেক গ্রুপে আছে এই আসন থেকে একাধিকবার নির্বাচিত আওয়ামীলীগ দলীয় এমপি মরহুম আবদুল হাকিমের ছেলে ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. কামরুল ইসলাম, আর আরেক গ্রুপে আছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক মিয়াজী । ৩ জনেই এলাকায় সক্রিয় এবং নির্বাচন করার জন্য প্র¯‘তি নিচেছন । দল এবং মহাজোটের তারা সম্ভাব্য প্রার্থীও।
এই আসন থেকে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির আওয়ামীলীগ দলীয় অন্যতম প্রার্থী ছিল সাবেক এমপি নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল। প্রতিদ্বন্ধিতায় ছিল হাকিম পরিবার থেকেও। কিš‘ রাজনৈতিক পরিবর্তিত পরি¯ি’তিতে আওয়ামীলীগ আসনটি ছেড়ে দেয় জাতীয় পার্টিকে। মহাজোট প্রার্থী হিসেবে জাপা মনোনয়ন পায় কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা জাপার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। আর বিদ্রোহী প্রার্থী হন প্রয়াত এমপি আবদুল হাকিমের ছেলে এড. কামরুল ইসলাম। তখন সাবেক এমপি নজরুল গ্রুপ জাপার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে। নির্বাচনে বিজয়ী হন জাপার অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। ¯’ানীয় আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের অভিযোগ, অধ্যাপক মিলন মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে এমপি হলেও তিনি এমপি হয়ে আওয়ামীলীগের সাথে কোন সম্পর্ক রাখেননি। তিনি আওয়ামলীগকে ক্ষতিগ্র¯’ করেছেন আর অপর দিকে, বিএনপিকে সুবিধা করে দিয়েছেন। আমরা আর তাকে চাই না। যদিও এমপি মিলন গ্রুপের পক্ষ থেকে বরাবরই এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।
নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্প্রতি নিজের প্রার্থীতা পরোক্ষ ভাবে জানান দেওয়ার জন্য সম্প্রতি বরুড়ায় নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি পরিকল্পনা মন্ত্রী লোটাস কামাল, সাধারণ সম্পাদক রেলমন্ত্রী মজিবুল হক মুজিবকে নিয়ে এক জনসভার আয়োজন করে। এই জনসভা পত্রিকায় বিবৃতি দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে বয়কট করে জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও এই আসনের সম্ভাব্য প্রার্থী এড. কামরুল ইসলাম। এখন পর্যন্ত এই আসনে আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন নেওয়ার জন্য চেষ্টা করে যা”েছন সাবেক এমপি ও উপজেলাআওয়ামীলীগ আহবায়ক নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল , জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. কামরুল ইসলাম ও শিল্প বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক মিয়াজী। মনোনয়ন দৌঁড়ে সম্প্রতি জেলা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক দুই মন্ত্রীকে এনে জনসভা করিয়ে কিছুটা এগিয়ে রয়েছেন নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল, ¯’ানীয় নেতাকর্মীরা এমনটাই মনে করেন। অপর দিকে, কামরুল ও এনাম গ্রুপের বক্তব্য, মনোনয়ন দিবেন আওয়ামীলীগের মনোনয়ন বোর্ড, বরুড়ার জনসভা না।
এ দিকে, বরুড়া আওয়ামীলীগ শিবিরে আরেকটি আতংক কাজ করছে আর তা হলো, আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে যদি জাতীয়পার্টিকে নিয়ে আওয়ামীলীগের মহাজোট অক্ষুন্ন থাকে আর সেক্ষেত্রে জাপা যদি তাদের বর্তমান আসনটি রাখতে চায় ,তখন কি হবে- এই তখন, যদি ও কিš‘র উপর ভিত্তি করে আরামের ঘুম হারাম হ”েছ বরুড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের তিন শিবিরেই।
অপর দিকে, ১৯৮৮সালের চতুর্থ সংসদ নির্বাচনের পর এই আসনে আবার জাতীয় পার্টির লাঙ্গল বিজয়ী হয় ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনে। তখনকার এমপি মাহাবুবুর রহমান ভুইয়া এখন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি। বর্তমানে জাতীয়পার্টির এমপি অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কামাল হোসেনও জাতীয় পার্টির। জাতীয় পার্টিতে এখানে কোন গ্রুপিং নেই। অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন দলের একক প্রার্থী। আসলে এখানে জাপার কোন নিজস্ব ভোট নেই। এমপি অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলনের ব্যক্তি ইমেজের কিছু নিজস্ব ভোট আছে।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন চাচেছন আরেকবার মহাজোটের প্রার্থী হতে। তবে জানা গেছে, মহাজোটের প্রার্থী না হতে পারলেও তিনি জাপা থেকে নির্বাচন করবেন।
দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ,সাবেক এমপি ও বরুড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল বলেন, ইনশাল্লাহ এবার এখানে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থীই মনোনয়ন পাবে এবং আমরা এখানে নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করব ইনশাল্লাহ।
অপর দিকে, জাতীয়পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও ¯’ানীয় এমপি অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন বলেন, ২০১৪ সালে যেমন এই আসনটি জাপা পেয়েছিল আল্লাহর রহমতে এবারো মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে জাপার পক্ষে এখানে আমিই নির্বাচন করব ইনশাল্লাহ। এতে কোন সন্দেহ নেই। মনোনয়ন চুড়ান্ত হলে সব দ্বন্ধ সংঘাত শেষ হয়ে যাবে বলে তিনি মনে করেন।
এলাকার ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার আর মাত্র ৪দিন বাকী থাকলেও এখনো এখানে আওয়ামীলীগ বা মহাজোটের প্রার্থী কে হবে তা জানা যায়নি। ফলে উভয় দলের মধ্যেই চলছে মনোনয়ন নিয়ে ¯œায়ু যুদ্ধ। এই হযবরল অব¯’া কাটিয়ে বিএনপির শক্তিশালী প্রার্থী কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক জাকারিয়া তাহের সুমনের সাথে নির্বাচনে কি করতে পারবে তা এখন দেখার বিষয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *