রবিবার, ৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
ঢাকায় ৮ তলার ওপর ভবন অনুমোদন না দেয়ার পরিকল্পনামাইগ্রেনের যন্ত্রণা কমায় গাঁজা : গবেষণাজন্ম থেকেই ব্যাটম্যান!পাকিস্তানে মসজিদ থেকে লাখ টাকা দামের জুতা চুরি!ক্ষুধার জ্বালায় মাটি খেত শ্রীদেবীর ৬ সন্তান, এগিয়ে এল সরকারসুদানের ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২৩উষ্ণতম বছরের তালিকায় এক নম্বর ২০১৯চার্জে রেখে মোবাইল ব্যবহারের সময় বিদ্যুতায়িত হয়ে মৃত্যুশক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল চিলিবিশ্বের সবচেয়ে বড় রক্তাক্ত উৎসব নেপালের গাধিমাইভারত হিন্দু রাষ্ট্র!অস্ট্রেলিয়ায় ভয়াবহ দাবানলজলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ৭ম বাংলাদেশবিয়ের আগে যৌন মিলন, বেত্রাঘাতে জ্ঞান হারালেন যুবকভারতে অনলাইনে ওষুধ বিক্রি বন্ধে আদালতের নির্দেশদিল্লিতে কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৩৫মহাসাগরে বিপদ : দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে অক্সিজেন বাড়ছে তাপমাত্রাকুমিল্লায় বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে ৫ সন্তানের জননী নিহতআজ কুমিল্লা মুক্ত দিবসশাসন শোষণ নীপিড়ন থেকে মুক্তি চায় ডিপ্লোমা কৃষিবিদরা

কুমিল্লায় কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে জাপার দুই গ্রæপের সংঘর্ষ; সাবেক এমপিসহ আহত ১০; আটক ৩

স্টাফ রিপোর্টার।। কুমিল্লা নগরীতে জাতীয় পার্টির এক সভায় বক্তব্য দেয়াকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে দফায়-দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার দুপুরে কুমিল্লা টাউন হল মিলনায়তনে মারামারির শুরু হয়ে পরবর্তীতে কুমিল্লা সার্কিট হাউজ পর্যন্ত বিস্তৃত হয় । এ ঘটনায় সাবেক এমপি আমির হোসেনসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ৩ জনকে আটক করে।

জানা যায়, শনিবার দুপুরে কুমিল­া টাউন হল মিলনায়তনে জাতীয় পার্টি কুমিল­া দক্ষিন জেলা, কুমিল­া উত্তর জেলা ও মহানগর এর সাংগঠনিক সভা চলছিলো। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী কাজী ফিরোজ রশিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এস. এম ফয়সাল চিশতী, বিরোধীদলীয় হুইপ অধ্যাপক রওশন আরা মান্নান এমপিসহ কেন্দ্রীয় কমিটির বেশ কয়েকজন নেতা।

সভা চলাকালীন সময়ে কুমিল­া দক্ষিন জেলা জাতীয় পার্টির সিনিয়র সহ-সভাপতি সালামত উল­াহ এর সাথে সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওবায়েদুল কবিরের বাক-বিতন্ডা হলে ঘটনার সূত্রপাত ঘটে। পরবর্তীতে কুমিল­া উত্তর জেলা জাতীয়পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আমির হোসেন মঞ্চে বক্তব্য দিতে গেলে মাখন সরকার মাইক কেরে নেয়। এতে করে মঞ্চের উভয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। অনুষ্ঠান শেষের পর মাঠের মধ্যে আমির হোসেন ও মাখন সরকারের কর্মীদের মধ্যে মারামারি আরাম্ব হয়। এসময় পুলিশ টাউন হল মাঠ থেকে ২ জন কর্মীকে আটক করে।

সভা শেষ করে কেন্দ্রীয় নেতারা কুমিল­া সার্কিট হাউজে আসে। সার্কিট হাউজে পুনরায় আমির হোসেন ও মাখন সরকারের মধ্যে হাতাহাতি আরাম্ব হয়। এসময় আমির হোসেন ও মাখন সরকার আহত হয়। পুলিশ এসময় মাখন সকারকে আটক করে। সবকটি ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

এ বিষয়ে উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি লুৎফুর রেজা খোকন জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামান্য হাতাহাতি ঘটনা ঘটে। বিষয়টি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ মিমাংসা করে দিয়েছে।

এ বিষয়ে কুমিল­া কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ারুল হক জানান, টাউন হল ও সার্কিট হাউজের ঘটনায় ৩ জনকে আটক করা হয়েছিল। এ বিষয়ে কারো কোন অভিযোগ না থাকায় পরবর্তীতে কেন্দ্রিয় নেতাদের অনুরোধে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *