বৃহস্পতিবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং | ১১ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
চৌদ্দগ্রামে বিদেশী পিস্তলসহ সন্ত্রাসী আটকজুয়া-মাদকের ক্ষেত্রে কোনো ছাড় নয় – এমপি সেলিমা আহমাদ মেরীপ্রবাসী স্বামীর সাথে অভিমানে প্যাথলজি কর্মচারীর আত্মহত্যাকুমিল্লায় বিজিবির অভিযানে মাদকসহ আটক ২বরুড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক সন্তানের জননীর মৃত্যুকুমিল্লার গালিমপুর ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণাডাকাতি নদীর বাঁধ নির্মাণ শুরু‘অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী’ যেন মুক্তিযুদ্ধের স্মারক- কুমিল্লা সিভিল সার্জন অফিসবেহাল মাধাইয়া-সিদ্ধেশ্বরী সড়ক দুর্ভোগে কুমিল্লার তিন উপজেলার মানুষকুমিল্লার প্রবীণ সাংবাদিক এম জি মাহফুজ আর নেইকুমিল্লায় বিজিবি অভিযানে পোনে ১ কোটি টাকার মাদকসহ আটক ৩কুমিল্লায় বিএনসিসির ১০ দিনের ময়নামতি রেজিমেন্টের ক্যাম্পিং সমাপ্তকমলনগরে পিডিবিএফের প্রশিক্ষণ সভাসেনবাগে তুলা কারখানায় আগুনশিশুর পাশে জেলা প্রশাসনচৌদ্দগ্রামে চলাচলের রাস্তা দখলমুক্ত করতে স্মারকলিপিচৌদ্দগ্রামে ওয়াহিদ সুফিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে স্কুল ড্রেস ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণকুমিল্লায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সভাবরুড়ায় ‘আলোর ফেরিওয়ালা’র কার্যক্রম শুরুকুমিল্লায় ৪র্থ স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

আরেক আসনে ধানের শীষের জয়

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আরেকটি আসনে জয় পেয়েছে বিএনপি। বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের স্থগিত তিন কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের পর বিজয়ের মুকুট উঠল বিএনপির প্রার্থী আবদুস সাত্তার ভূঁইয়ার মাথায়। এ নিয়ে বিএনপি মোট ছয়টি আসনে জয় লাভ করল।

ধানের শীষ প্রতীকে ৮৩ হাজার ৯৯৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিটকতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মঈন উদ্দিন কলার ছড়ি প্রতীকে পেয়েছেন ৭৫ হাজার ৪১৯ ভোট।

বুধবার কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে স্থগিত তিন কেন্দ্রে পুনরায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। তিন কেন্দ্রের ফলাফলে ধানের শীষ প্রতীকে সাত্তার পেয়েছেন ১ হাজার ২৭৪ ভোট আর কলার ছড়ি প্রতীকে মঈন পেয়েছেন ২ হাজার ৮৫৫ ভোট। এ তিন কেন্দ্রের নিরাপত্তায় মোতায়েন ছিল ৩৩৯ জন পুলিশ সদস্য, ৩৬ জন আনসার এবং দুই প্লাটুন বিজিবি ও দুই প্লাটুন র্যাব সদস্য।

ভোটের প্রথম প্রহরে আশুগঞ্জ উপজেলার সোহাগপুর (দক্ষিণ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোটারদের সরব উপস্থিতি ছিল। তবে বেলা সাড়ে ১১টার পর থেকে কমতে থাকে ভোটারদের ভিড়। এ তিন কেন্দ্রের মোট ভোটার ১০ হাজার ৫৭৪ জন। আর আগে থেকেই ১০ হাজার ১৫৯ ভোটে এগিয়ে থাকায় জয় অনেকটা নিশ্চিত ছিল সাত্তারের।

উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর অনিয়ম ও গোলযোগের কারণে সোহাগপুর (দক্ষিণ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। পরে পুনরায় ভোট গ্রহণের জন্য ৯ জানুয়ারি নির্ধারণ করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share
  • 1
    Share



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *