শনিবার, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ১২ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
কুমিল­ায় বিদেশী অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী গ্রেফতারদেবিদ্বারের যানজট নিয়ে যা বললেন অস্ট্রেলিয়ান পর্যটক আকলেস খুদমুরাদনগরে কৃষকের ওপর সন্ত্রাসী হামলানবীনগরে গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ!সীমান্তে দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করল বিএসএফপৃথিবীর সবচেয়ে রঙিন নদী কানোক্রিসটেলসফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে নিজের বুকে গুলি চালালো পুলিশকুমিল্লায় দোকানী হত্যা- প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করায় খুন হয় নাছিরইজিবাইক উল্টে কুবির সাত শিক্ষার্থী আহতব্রাহ্মণপাড়ায় মাঠ জুড়ে গোল আলু গাছের সবুজ সমারোহকুমিল্লায় ৭ জুয়াড়ীকে সাজাফেনীতে নজর কাড়ছে দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্যআখের লালি তৈরিতে মাতোয়ারা বিষ্ণপুরভয়াবহ দুর্ঘটনায় গাড়ি চুরমার, প্রাণে বাঁচলেন আর্জেন্টিনা গোলরক্ষকভৈরবে ছয় মণের বিশাল মাছ দেখতে মানুষের ভিড়নিজে না খাইয়ে মাছকে খাওয়াচ্ছে হাঁস (ভিডিও)কুবিতে সাংবাদিক মারধরের ঘটনায় দুইজনসহ তিন শিক্ষার্থী বহিষ্কারমার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লিগ এমসিসিকে হারিয়ে সেমিফাইনালে এফসিআইচাঁদপুরে বেগুনি রঙের ধান নিয়ে সারাদেশে তোলপাড়তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭.৭

শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যের খাবারে মিলল ইঁদুর

সরকারিভাবে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য বরাদ্দকৃত দুপুরের খাবারে ইঁদূর পাওয়া গেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুজাফফারাবাদ জেলায়। জনকল্যাণ সংস্থা নামের একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান খাবারগুলো সরবরাহ করেছিল। সেই খাবার খেয়ে অন্তত ৯ শিক্ষার্থী ও একজন শিক্ষক অসুস্থ হন।

ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মুজাফফারাবাদ জেলা শহর থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরের হাপুরভিত্তিক জনকল্যাণ সংস্থার সরবরাহ করা ওই খাবার খেয়ে অসুস্থ হওয়ায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। ঘণ্টাখানেক পর অব্যাহতি পান তারা। ষষ্ঠ শ্রেনি থেকে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের এসব খাবার দেয়া হয়।

ষষ্ঠ শ্রেনির ছাত্র শিবাংকে খাবারে ইঁদুর পাওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে সে এনডিটিভির প্রতিবেদককে ‘জি স্যার’ বলে তার নিশ্চিত করে। সে আরও বলে, ‘আমরা চামচ দিয়ে ডাল নিচ্ছিলাম তখন খাবারের মধ্যে একটা ইঁদুর দেখতে পাই।’ তারপরও ওই খাবার আরও ১৫ জন শিক্ষার্থীকে খেতে দেয়া হয় বলে জানিয়েছে সে।

স্থানীয় শিক্ষা কর্মকর্তা রাম সাগর ত্রিপাঠি ঘটনার পর সাংবাদিকদের বলেন, ‘এরকম একটা জঘন্য ঘটনা দায়িত্বহীনতার বড় উদাহরণ। জন কল্যাণ বিকাশ কমিটি দুপুরের খাবার তৈরি করে। তাদের ডালে ছিল ইঁদুর। আমরা জানার পর সেই খাবার বন্টন বন্ধ করে দেই। অসুস্থ হলে নয়জন শিশুকে হাসপাতালে নিতে হয়েছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘এটা অন্য কিছু না, এটা শুধুই দায়িত্বহীনতা। তবে যারা অসুস্থ হয়েছিল তারা সবাই এখন ভালো আছে।’ বাজে খাবার সরবরাহ করে শিশুদের জীবন হুমকির মুখে ঠেলে দেয়ার মতো দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজের জন্য ওই বেসরকারি সংস্থার বিরুদ্ধে শিগগিরই তদন্ত শুরু হবে বলেও জানিয়েছেন ওই শিক্ষা কর্মকর্তা।

সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের উত্তরপ্রদেশ সরকার বেশ কিছু খারাপ কাজের জন্য গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছে। বিশেষ করে স্কুলের দুপুরের খাবার নিয়ে। গত সপ্তাহে রাজ্যটির সোনভদ্রা জেলার একটি স্কুলের রান্নার ভিডিওতে দেখা যায়, একজন পাচক দুপুরের খাবার হিসেবে ৮১ লিটার পানির মধ্যে এক লিটার দুধের প্যাকেট মেশাচ্ছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *