শনিবার, ২৩শে মার্চ, ২০১৯ ইং | ৯ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
হোমনায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীবরুড়ায় শিক্ষক সমিতির মানববন্ধনবরুড়ায় শিখা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিতনৌকার বিরুদ্ধে গেলেই বহিষ্কারকুমিল্লায় ৮জন হত্যা মামলায় জামায়াত নেতা ডা. তাহের কারাগারেমানবিক আবেদন মানুষ মানুষের জন্য পাশে দাঁড়ান পরিবারটিকে বাঁচানতনুর হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার দাবিতে তার কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ‘স্মিথ-ওয়ার্নার ফিরলে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ জিততে পারে’কুমিল্লা সদরে গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতারআদালতে যেতে ‘অনিচ্ছুক’ খালেদা জিয়ামসজিদে হামলার চারদিন পর ৬ জনের মরদেহ হস্তান্তর, স্বজনদের ক্ষোভলক্ষ্মীপুরে আ.লীগের ৬ নেতা বহিষ্কারআজও ৭ ছাত্রী অজ্ঞান, স্কুল বন্ধ ঘোষণাতনু হত্যার তিন বছর তদন্তের নেই কোন অগ্রগতিনিজের দেশেই কোচ হচ্ছেন ইউনিসবিশ্বকাপের নিরাপত্তা শঙ্কা উড়িয়ে দিল আইসিসিকুমিল্লায় বাস চাপায় বৃদ্ধ নিহতহোমনায় ব্যাটারি চার্জ দিতে গিয়ে অটোচালক নিহতআশুগঞ্জে নতুন পাওয়ার প্লান্টের নির্মাণ কাজ শুরুএকে একে অজ্ঞান ৮ ছাত্রী

পাঁচ নেতার বহিষ্কার চাইলেন পরাজিত মঈন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনে বিএনপি প্রার্থীর কাছে পরাজিত হয়ে নিজ দলের পাঁচ নেতার বহিষ্কার চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মঈন উদ্দিন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ‘কলার ছড়ি’ প্রতীক নিয়ে লড়েন মঈন। নির্বাচনে তিনি বিএনপির প্রার্থী অবদুস সাত্তার ভূঁইয়ার কাছে পরাজিত হয়েছেন।

বুধবার (৯ জানুয়ারি) আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যদিয়ে এ আসনের স্থগিত তিন কেন্দ্র- আশুগঞ্জ উপজেলার সোহাপুর (দক্ষিণ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় ফলাফল ঘোষণার পর স্থানীয় একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন করে আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক হাজী মো. ছফিউল্লাহ্ মিয়াসহ দলের পাঁচ নেতার বহিষ্কারের পাশাপাশি আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বদরুল আলম তালুকদারের অপসারণ দাবি করেন।

এ সময় তিনি আশুগঞ্জ থানার ওসি বদরুল আলম তালুকদারের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে তাকে আগামী সাত দিনের মধ্যে অপসারণেরও দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু নাছের আহমেদ, উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমির হোসেন ও তালশহর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু শামা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের ১৩২ কেন্দ্রের মধ্যে তিন কেন্দ্রে অনিয়ম ও গোলযোগের কারণে ভোটগ্রহণ স্থগিত রাখা হয়। তবে ১২৯ কেন্দ্রের ফলাফলে আবদুস সাত্তার ধানের শীষ প্রতীকে পান ৮২ হাজার ৫২৩ ভোট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মঈন উদ্দিন কলার ছড়ি প্রতীকে পান ৭২ হাজার ৫৬৪ ভোট। স্থগিত তিন কেন্দ্রের ভোটার সংখ্যা ১০ হাজার ৫৭৪। তিন কেন্দ্রের ফলাফলে সাত্তার পেয়েছেন এক হাজার ২৭৪ ভোট আর মঈন পেয়েছেন দুই হাজার ৮৫৫ ভোট।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    12
    Shares
  • 12
    Shares



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *