মঙ্গলবার, ৭ই এপ্রিল, ২০২০ ইং | ২৪শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
করোনাভাইরাসে মৃত ব্যক্তিকে নির্ভয়ে দাফন-কাফন করুনদেবিদ্বারে করোনা সন্দেহে এক রোগি ভর্তি :অন্যান্য ভর্তি রোগিরা হাসপাতাল থেকে পলায়ন; চিকিৎসক নার্সদের মধ্যে আতঙ্ক;কুমিল্লার ১৮টি থানা এলাকায় পুলিশের নিত্য পণ্যের ভ্রাম্যমান দোকানসদর দক্ষিনের বিজয়পুরে জ্বরে আক্রান্ত কৃষি শ্রমিকের মৃত্যুকরোনায় কুমিল্লার নিত্যপণ্যের বাজারের হালচালমুসল্লিদের নামাজ ঘরে পড়ার নির্দেশওষুধের দোকান ছাড়া সন্ধ্যার পর সব বন্ধ রাখার নির্দেশকুমিল্লা সদর দক্ষিণের বিজয়পুরে এক শ্রমিকের মৃত্যুসব রোগের এক চিকিৎসকমারা গেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পিপি এস এম ইউসুফ‘ঘরে থাকুন, পণ্য পৌঁছে দেবে পুলিশ’কুমিল্লা কারগারের ভিতর ৫২২পিছ ইয়াবাসহ ধরা খেল সহকারী প্রধান কারারক্ষী শাহিনকরোনা আক্রান্ত সন্দেহে কুমিল্লা নগরীতে বাড়ি লকডাউন!কুমিল্লায় আরও ছয়জনের নমুনা সংগ্রহদেশে আরো ২৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত, মোট ১১৭নাঙ্গলকোটে বজ্রপাত কেড়ে নিল কিশোরের প্রাণদেশে করোনায় আরো ৪ জনের মৃত্যু, মোট ১৩যে ছয় বিভাগে ঝড়সহ বজ্রবৃষ্টির সম্ভাবনাআবদুল জলিল সরকার ট্রাস্টের উদ্যোগে পিপিই বিতরণকুমিল­ার দুই বাড়ি লকডাউন

করোনাভাইরাসের বিস্তার: প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিন

চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে সৃষ্ট প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (২০১৯-এনসিওভি-করোনা) এরই মধ্যে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও ইউরোপ-আমেরিকার ১২টি দেশে পৌঁছে গেছে বলে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে; এমনকি আমাদের পাশের দেশ নেপালেও এ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৩০০ ছাড়িয়েছে এবং আক্রান্তদের মধ্যে অন্তত ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। উদ্বেগজনক হল, চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের নিবিড় বাণিজ্যিক সম্পর্ক থাকায় প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ এ দুই দেশে যাতায়াত করে থাকেন। সে ক্ষেত্রে আমাদের দেশেও বিপজ্জনক এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। স্বস্তির বিষয় হল- কর্তৃপক্ষ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ দেশের সব প্রবেশদ্বারে বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা জানিয়ে নিশ্চিত করেছেন- এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো রোগীর তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে সম্প্রতি চীন থেকে দেশে আসা একজন পিএইচডি গবেষক চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা না থাকার কথা জানিয়েছেন। এ বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে দেখা প্রয়োজন।

করোনাভাইরাস যেহেতু ছোঁয়াচে, তাই এ ব্যাপারে প্রত্যেকের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হচ্ছে- হাঁচি-কাশিরত ব্যক্তির কাছ থেকে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান নেয়ার পাশাপাশি রুমাল-টিস্যু-গামছা দিয়ে নাক-মুখ ভালোভাবে ঢেকে নিতে হবে; প্রয়োজনে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। এ ছাড়া সব ধরনের ফলমূল ভালো করে ধুয়ে খাওয়ার পাশাপাশি দুই হাত বারবার সাবান-পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলা উচিত। একজন মানুষ নিজের অজান্তেই প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের শিকারে পরিণত হতে পারেন, কাজেই সচেতনতা বৃদ্ধিসহ সবার, বিশেষ করে শিশুদের বিড়াল, কবুতর, কুকুর ইত্যাদি পোষা প্রাণীর সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখতে হবে। বলার অপেক্ষা রাখে না, ‘২০১৯-এনসিওভি করোনা’ নামের নতুন এ ভাইরাসটির কোনো প্রতিষেধক না থাকায় জনসচেতনতাই এর আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়ার একমাত্র উপায়। করোনাভাইরাস সম্পর্কে দেশবাসীকে সচেতন করার পাশাপাশি সরকার প্রতিরোধ ও চিকিৎসা সংক্রান্ত সব ধরনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে- এটাই প্রত্যাশা।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *