সংবাদ শিরোনাম
বুধবার, ১২ই আগস্ট, ২০২০ ইং | ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
কুমিল্লায় নতুন করে ৪৫ জনের করোনা শনাক্ত: জেলায় বেড়ে দাঁড়াল ৫,৯৮৩বাড়ির সীমানা খুঁটি তুলে ফেলায় ভাইয়ের হাতে ভাই খুনতিতাস উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের ইয়াবা সেবনের ভিডিও ভাইরালকুমিল্লায় তেল চুরির অভিযোগে দিনমজুরকে পিটিয়ে হত্যা!নিমসারে বীর মুক্তিযোদ্ধা রমিজ উদ্দিন মাস্টারের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলপ্রতারণা করে প্রেম- তারপর বিয়ে, নববধূর আত্মহত্যা, স্বামী গ্রেফতারকুমেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে ছয়জনের মৃত্যুকুমিল্লায় প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষর জালিয়াতিনভেম্বর থেকে স্বাভাবিক নিয়মে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরুমস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার, সংকটাপন্ন প্রণব মুখার্জিবার্মিংহামে প্লাস্টিক ফ্যাক্টরিতে ভয়াবহ আগুনএবার হচ্ছে না পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষাবুড়িচংয়ে উপজেলা যুবলীগ নেতা খোরশেদ আলমের জানাযা সম্পন্নকুমিল্লা-চাঁদপুর সড়কের মগবাড়ী-মনোহরা চৌমুহনী হয়ে আমড়াতলী পশ্চিম বাজার দীর্ঘ ২০ বছর যাবৎ প্রায় ৬ কিলোমিটার রাস্তায় ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহননারী গার্মেন্টস কর্মী ধর্ষণ মামলার আসামীকে চাঁদপুর থেকে গ্রেফতারব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দাদা-নাতির মৃত্যুকরোনায় কুমিল্লায় নতুন আক্রান্ত ৭১: জেলায় বেড়ে দাঁড়াল ৫,৯৩৮ জনকুমিল্লায় বিনার উদ্ভাবিত জাত সমুহের উপর কৃষি কর্মশালাব্রাহ্মণবাড়িয়ার বড় হুজুরের জানাযায় মানুষের ঢলকুমেক হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে আরও ৫ জনের মৃত্যু

কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের প্রশংসনীয় উদ্যোগ- হ্যালো-আপনার কৃষক-এ ফোন করলেই ধান কাটতে জমিতে চলে যাচ্ছে ছাত্রলীগ

এম এইচ সোহাগ।।

করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছেন কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগ।ছবিটি জেলার দেবিদ্বার থেকে তোলা।….

মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দেখা দিয়েছে কৃষি শ্রমিকের সংকট। বাতাসের সাথে পাকাধান মাঠে ঢেউ খেললেও তা কেটে ঘরে তোলার মতো সামর্থ অনেক কৃষকেরই নেই। এমন কৃষকদের সহযোগিতার জন্য এগিয়ে এসেছে কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগ। চালু করেছে আপনার কৃষক নামের একটি হট লাইন নাম্বার। অসহায় কৃষকদের হটলাইন নাম্বারে ফোন করে সহযোগিতা নেওয়ার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারণা চালানো হয়েছে।
ছাত্রলীগের ধান কাটার এই উদ্যোগকে প্রশংসা করে কৃষক বন্ধু ও বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত অধ্যাপক মতিন সৈকত বলেন,করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা যখন ধান কাটতে পারছিল না লোকের অভাবে তখন ছাত্রলীগের ছেলেরা যে ভাবে মাঠে গিয়ে সাধারণ কৃষকের ধান কেটে আবার বাড়িতেও পৌঁছে দিচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। আমি তাদের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে বলব, জাতির এই ক্লান্তিলগ্নে দেশের অন্যান্য ছাত্রসংগঠন গুলোও যেন ছাত্রলীগকে অনুসরণ করে এগিয়ে আসে।
বৃহস্পতিবার জেলার দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের নোয়াবগঞ্জ গ্রামে বিধবা কৃষক সহ কয়েকজন কৃষকের দুই একরের বেশি পাকা ধান কেটে সেগুলো মাড়াই করে বস্তায় ভরে কৃষকের বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছে কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।
এর আগেও উত্তর জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জেলার বিভিন্ন এলাকায় কৃষকের ধান কেটে মাড়াই করে কৃষকের বাড়িতে পৌছে দেয়। মহামারি করোনার প্রভাবে এমনিতেই বিপাকে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষ। কিছুদিন আগে উত্তর জেলা ছাত্রলীগের হ্যালো ছাত্রলীগ নামের সেবা কার্যক্রম চালু করে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে যা বর্তমানে চলমান রয়েছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত হ্যালো ছাত্রলীগ সেবা কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানা গেছে। হ্যালো ছাত্রলীগ নামের নির্ধারিত ফোন নাম্বারে কল করলেই অসহায়দের নাম-ঠিকানা রেজিস্ট্রি করে পরবর্তীতে ওই পরিবারে খাদ্য সহায়তা সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে উত্তর জেলা ছাত্রলীগ। বর্তমানে তিতাস, দেবিদ্বার, মুরাদনগর, চান্দিনা দাউদকান্দি ও বাঙ্গরা বাজার থানায় হ্যালো ছাত্রলীগ কার্যক্রমটি পরিচালিত হচ্ছে। প্রতিদিন ২০ থেকে ২৫ জন অসহায় গরীব ও নিম্নআয়ের মানুষ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সহযোগিতা ও ত্রাণ সামগ্রী পাচ্ছেন।

করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছেন কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগ।ছবিটি জেলার দেবিদ্বার থেকে তোলা।…

হ্যালো ছাত্রলীগ নামের সেবা কার্যক্রমের মাধ্যমে সর্বমহলে প্রশংসিত হওয়ার পর বর্তমানে উত্তর জেলা ছাত্রলীগ আপনার কৃষক নামে আরেকটি হট লাইন নাম্বার চালু করেছে। যেখানে দিনমজুর ও অসহায় কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। যারা কৃষি শ্রমিক অথবা অর্থাভাবের কারণে জমির পাকা ধান কাটতে পারছেন না তাদেরকে আপনার কৃষক নামের কর্মসূচি থেকে সেবা নেওয়ার জন্য একটি হটলাইন নাম্বার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে দেয়া হয়েছে। সেখান থেকে কৃষকেরা নাম্বার সংগ্রহ করে হট লাইনে কল করছেন।
হটলাইনের দায়িত্ব প্রাপ্ত একজন ছাত্রলীগ কর্মী ওই কৃষকের নাম ঠিকানা রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করে। পরবর্তীতে রেজিস্টার অনুযায়ী ধান কেটে মাড়াই করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এই ধারাবাহিকতায় ২৩ এপ্রিল বৃহস্পতিবার কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু কাউছার অনিক এর নেতৃত্বে প্রায় একশত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের নোয়াবগঞ্জ গ্রামের কৃষকদের ২১০ শতক জমির পাকা ধান কেটে মাড়াই করে দিয়েছেন।
মরহুম মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস মিয়ার বিধবা স্ত্রী রোকেয়া বেগম জানান, কৃষি শ্রমিকের অভাবে তার ৬০ শতক জমির পাকা ধান কেটে বাড়িতে তুলতেই পারছিলেন না। ছাত্রলীগের ফোন নাম্বারে কল করার পর তারা এসে জমি থেকে তার ধান কেটে মাড়াই করে দিয়ে গেছেন। ছাত্রলীগের ছেলেদের কারণে তার অনেক উপকার হয়েছে। তা না হলে ধান কেটে মাড়াই করতে তার অনেক কষ্ট হতো।
বৃহস্পতিবার উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু কাউছার অনিকের নেতৃত্বে ধান কাটায় অংশগ্রহণ করেন, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সহ- সভাপতি – হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ- সভাপতি – আল খুমিনী, সহ- সভাপতি জালাল উদ্দিন সাকিব, উপ প্রচার সম্পাদক আব্দুল্লা আল মামুন, দপ্তর সম্পাদক – সৈকত, দেবিদ্বার উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আমিনুল ইসলাম সুমন, দেবিদ্বার পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মিজান মুন্সি, দেবিদ্বার সুজাত আলী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি বিল্লাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক কাজী শিহাব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক – প্রনব দাস, দেবিদ্বার পৌর ছাত্রলীগের সহ- সভাপতি সাব্বির আহমেদ পলাশ,সহ -সভাপতি – নাজমুল হাসান, জেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাপ্পু, দেবিদ্বার উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য – রাতুল রহমান আশীক, মন্জু, জেলা ছাত্রলীগ সসদস্য আমির হোসেন, উপজেলা সদস্য শুভ,
ফতেহাবাদ ইউনিয়নের (পশ্চিম) ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ পরান, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম মমিন, ছাত্রলীগ নেতা শাহরিয়ার, আনিসুল রহমান অনিস, হাসান, রবি প্রমুখ।

করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছেন কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগ।ছবিটি জেলার দেবিদ্বার থেকে তোলা।…

উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু কাউছার অনিক জানান, করোনা ভাইরাসের কারনে ধান কাঁটার শ্রমিক সংকটের কারনে কৃষকেরা সময় মত ধান কাঁটতে পারছে না। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের মানবিক নির্দেশে এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের উৎসাহ উদ্দীপনায় কৃষকদের ধান কেটে মাড়াই করে দেয়ার জন্য উত্তর জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এছাড়াও আমরা হ্যালো ছাত্রলীগ হট লাইন নাম্বার চালু রেখেছি, যার মাধ্যমে প্রতিটি থানায় ২০ থেকে ২৫ জন অসহায় মানুষ খাদ্যসামগ্রী ও ত্রাণ পাচ্ছেন। কৃষকদের পাশে দাড়ানোর উদ্দেশ্যে ‘আপনার কৃষক’ নামের আরেকটি হটলাইন নাম্বার চালু করা হয়েছে। অসহায় ও কৃষকদের ০১৮১৯৪৪২৫৬৪ এই হটলাইনে কল দিয়ে সেবা নেয়ার আহ্বান জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *