রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
চাল পিয়াজ-সহ দ্রব্যমুল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতিতে জনগন দিশেহারা …. ডাঃ ইরানবিশ্বকাপ বাছাইয়ে আর্জেন্টিনা দল ঘোষণামেঘনা-ধনাগোধা বেড়িবাঁধে আকস্মিক ভাঙন, আতঙ্কে লাখো মানুষচুরি যাওয়া গরুর সন্ধান দিলেই মিলবে পুরস্কারছাত্র বিক্ষোভে উত্তাল হাটহাজারী মাদ্রাসাএ বছরও বিনামূল্যে এক লাখ গাছের চারা বিতরণ করবে লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘপদ্মবিল জুড়ে শরতের শুভ্রতা, হৃদয় কাড়ছে সৌন্দর্য পিপাসুদের‘২০২১ সাল আরো বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে’কুমিল্লানগরীর দিশাবন্দে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুবাসে তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ, অভিযুক্ত চালক-হেলপার গ্রেফতাররেলের বগি নির্মাণে আরো একটি কারখানা হবে: রেলমন্ত্রীবাড়ি ফেরার পথে বাসের দরজা-জানালা বন্ধ করে তরুণীকে গণধর্ষণআবদুল মতিন খসরু এমপি’র নির্দেশনায়” যানজট নিরশনে বুড়িচংয়ে বাইপাস সড়ক চালু করার সিদ্ধান্তকুমিল্লার আজকের করোনা আপডেটচাকরির বয়স ১০ বছর হলে উচ্চতর গ্রেডে বাধা নেইফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ভারতের পতন, বাংলাদেশ আগের অবস্থানেইকুমিল্লার আজকের করোনা আপডেটহাত-পা বেঁধে ছাত্রকে মারধর, শিক্ষকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিপিলখানায় চলছে বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন, প্রাধান্য পাবে সীমান্ত হত্যাবৃষ্টি নিয়ে যা জানালো আবহাওয়া অফিস

কুমিল্লায় যুবদল নেতা সোহেল হত্যা মামলায় অপর যুবদল নেতার ফাঁসি


স্টাফ রিপোর্টার ।।
কুমিল্লা নগরীর রেইসকোর্স এলাকার এসএম তৌহিদ সোহেল হত্যা মামলায় একজনকে মৃত্যুদ- ও অপর দুই আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। বুধবার দুপুরে এই রায় ঘোষণা করেন কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল মামুন। তবে এই রায়ে বাদী পক্ষ অসন্তোষ প্রকাশ করলেও সন্তোষ প্রকাশ করেছেন আসামী পক্ষ।


সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব বিরোধ ও দলীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২০১২ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর কুমিল্লা রেইসকোর্স এলাকার বাসা থেকে একটু দূরে যুবদল নেতা এসএম তৌহিদ সোহেলকে কুপিয়ে হত্যা করে রেইসকোর্স এলাকার মৃত কদম আলীর ছেলে আরেক যুবদল নেতা আহসান হাবিব মিঠু । এ ঘটনার পরে তৌহিদ সোহেলের স্ত্রী বদরুন নাহার লুনা বাদী হয়ে আহসান হাবিব মিঠু ও তার ভাই মোস্তফা জামানের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মোস্তফা জামান বর্তমানে জেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদকের পদে রয়েছেন। আর খুন হওয়া সোহেল ওই সময়ে জেলা যুবদলের প্রভাবশালী নেতা হিসেবে পরিচিত থাকলেও কোন পদে ছিলেন না।
মামলার বাদী তৌহিদ সোহেলের স্ত্রী বদরুন নাহার লুনা বলেন, আমার স্বামীকে হত্যা করেছে আহসান হাবীব মিঠু ও তার ভাই মোস্তফা জামান। এছাড়াও আসামি আহসান হাবীব মিঠু আদালতে স্বাক্ষী দিয়েছে তার সহযোগী হাসানও খুনের ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত ছিলোা। আদালত আজ পলাতক আহসান হাবীব মিঠুকে মৃত্যুদ- দিলেও তার ভাই মোস্তফা জামান ও হত্যার ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত হাসানকে বেকসুর খালাস দিয়েছে। এখন বেকসুর খালাস পাওয়া আসামির জন্য এখন রেইসকোর্স এলাকায় থাকা সম্ভব হবে না। আমরা এই রায় মানি না। আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো।
এদিকে, বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দীর্ঘ ১২ বছর পর রায় ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। আমরা এনিয়ে উচ্চ আদালতে যাবো। তবে বিবাদী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আলী আক্কাস এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *