রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
চাল পিয়াজ-সহ দ্রব্যমুল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতিতে জনগন দিশেহারা …. ডাঃ ইরানবিশ্বকাপ বাছাইয়ে আর্জেন্টিনা দল ঘোষণামেঘনা-ধনাগোধা বেড়িবাঁধে আকস্মিক ভাঙন, আতঙ্কে লাখো মানুষচুরি যাওয়া গরুর সন্ধান দিলেই মিলবে পুরস্কারছাত্র বিক্ষোভে উত্তাল হাটহাজারী মাদ্রাসাএ বছরও বিনামূল্যে এক লাখ গাছের চারা বিতরণ করবে লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘপদ্মবিল জুড়ে শরতের শুভ্রতা, হৃদয় কাড়ছে সৌন্দর্য পিপাসুদের‘২০২১ সাল আরো বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে’কুমিল্লানগরীর দিশাবন্দে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুবাসে তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ, অভিযুক্ত চালক-হেলপার গ্রেফতাররেলের বগি নির্মাণে আরো একটি কারখানা হবে: রেলমন্ত্রীবাড়ি ফেরার পথে বাসের দরজা-জানালা বন্ধ করে তরুণীকে গণধর্ষণআবদুল মতিন খসরু এমপি’র নির্দেশনায়” যানজট নিরশনে বুড়িচংয়ে বাইপাস সড়ক চালু করার সিদ্ধান্তকুমিল্লার আজকের করোনা আপডেটচাকরির বয়স ১০ বছর হলে উচ্চতর গ্রেডে বাধা নেইফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ভারতের পতন, বাংলাদেশ আগের অবস্থানেইকুমিল্লার আজকের করোনা আপডেটহাত-পা বেঁধে ছাত্রকে মারধর, শিক্ষকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিপিলখানায় চলছে বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন, প্রাধান্য পাবে সীমান্ত হত্যাবৃষ্টি নিয়ে যা জানালো আবহাওয়া অফিস

ইউটিউবে মাছ চাষের ভিডিও দেখে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন উজ্জ্বল

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ইউটিউবে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষের ভিডিও দেখে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার তরুণ উদ্যোক্তা মো. উজ্জ্বল মিয়া। 

তিনি চাকরি ছেড়ে দিয়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বল্প জায়গায় বায়োফ্লক প্রদ্ধতিতে মাছ চাষ শুরু করেন এই তরুণ উদ্যোক্তা। 

পৌর শহরের কলেজ পাড়া (টিএন্ডটি) সংলগ্ন এলাকার নিজ বাড়ি সংলগ্ন একটি জায়গা ভাড়া নিয়ে পরীক্ষামূলক নির্দিষ্ট কলাকৌশল আর প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়ে ট্যাংকিতে মাছ চাষ করেন। কম শ্রমে স্বল্প জায়গায় মাছ চাষ করে অধিক লাভ হওয়া যায় তিনি সে চেষ্টা করছেন। 

তরুণ উদ্যোক্তা উজ্জ্বল ওই এলাকার মো. আনু মিয়ার ছেলে। তিন ভাই এক বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। দারিদ্রতার কারণে লেখাপড়া বেশি দূর করতে পারেননি। পরিবারে অভাব অনটন থাকায় প্রায় ৮ বছর আগে চট্রগ্রামে একটি গামের্ন্টেসে চাকরি নেন। সেখানে বেশ কয়েক বছর কাজ করার পর চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসেন।  

এক পর্যায়ে ইউটিউব চ্যানেল বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষের ভিডিও সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন। এ বিষয়ে রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও ঢাকায় তিনি প্রশিক্ষণ নেন। নিজ বাড়ি সংলগ্ন একটি জায়গা ভাড়া নিয়ে ১৫ হাজার লিটার পানি ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন গোল আকৃতির একটি ট্যাংকে তৈরি করেন। যা তৈরি করতে ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হয়। এরপর দেশীয় প্রজাতির শিং, কৈ মাছের ১৭ কেজি পোনা দিয়ে মাছ চাষ শুরু করেন। ওইসব মাছের পোনা ছিল শূন্য থেকে ১৫ দিনের। ১ কেজিতে পোনা ছিল ২ হাজার। তার চৌবাচ্চায় ৩৪ হাজার পোনা। কৈ মাছের পোনা ১৮ হাজার  ও শিং ৭ হাজার ৬ শত টাকায় কেনা হয়। খাবারসহ আনুসঙ্গিক খরচ হয় আরো ১২ হাজার টাকা। 

গত ২ মাসে বেড়ে ৬০- ৬৫টি মাছ ১ কেজি হয়। মাছগুলো স্বল্প সময়ের মধ্যে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করা হবে। মাছের যে অবস্থা তিনি আশা করছেন ১ লাখ ৯০ হাজার থেকে ২ লাখ টাকা বিক্রি করা যাবে। তার মৎস্য চাষের সফলতা দেখে এলাকার অনেকেই এগিয়ে আসছেন। 

তিনি বলেন, এটি এমন একটি পদ্ধতি, যেখানে অল্প জায়গায় অধিকসংখ্যক মাছ চাষ করা যায়। এ পদ্ধতিতে স্বল্প পুজিতে কম সময়ে বিপুলসংখ্যক মাছ উৎপাদন সম্ভব। এ পদ্ধতি মাছ চাষ করতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। পরীক্ষামূলক সাফল্য পাওয়ায় আরো দুটি চৌবাচ্চা করার পরিকল্পনা রয়েছে।

ট্যাংকে মাছ চাষের বেশ কয়েকটি পদ্ধতি চালু রয়েছে তার মধ্যে রিসাইক্লিং অ্যাকুয়াফিনিক সিস্টেম বা সংক্ষেপে রাস, আলাস, বায়োফ্লক। সবগুলোর মধ্যে সহজ ও লাভজনক হচ্ছে বায়োফ্লক পদ্ধতি। এ পদ্ধতিতে চাষে মাছের খাবার খরচ কম হয়। জৈব বর্জ্যের পুষ্টি থেকে পুনঃব্যবহার যোগ্য খাবার তৈরি করা হয়। 

পানিতে ব্যাকটেরিয়া, অণুজীব ও শৈবালের সমম্বয়ে পাতলা একটি আস্তরণ তৈরি হয়। যা পানিকে ফিল্টার করে। পানি থেকে নাইট্রোজেন জাতীয় ক্ষতিকর উপাদানগুলি শোষণ করে প্রোটিন সমৃদ্ধ যে উপাদানগুলো থাকে সেগুলো মাছ খাবার হিসেবে গ্রহণ করে। 

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আব্দুস সালাম বলেন, বায়োফ্লক পদ্ধতির মাছ চাষে দিন দিন আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে। আগ্রহীদের সব ধরনের সার্বিক সহযোগিতা করা হচ্ছে। 

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *