বৃহস্পতিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
একান্ত সাক্ষাৎকার আধুনিক পৌরসভা গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়রহাজীগঞ্জে আমড়া খাওয়ার জন্য প্রাণ দিল আরফাকুমিল্লায় স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামী-শ্বশুর গ্রেফতারবরুড়ায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণসভা‘বাংলাদেশের শত্রু বাংলাদেশই’সাকিবদের সামনে আফগান চ্যালেঞ্জআফগানিস্তান ম্যাচের আগে হঠাৎ দলে আবু হায়দারপ্রবাসীদের লাশ টাকার অভাবে বিদেশে পড়ে থাকবে না, লাশ আসবে সরকারি খরচে: অর্থমন্ত্রীকুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন- আয়তন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ৭ বছর ধরে ঝুলে আছে মন্ত্রনালয়েধর্ষণদৃশ্য দেখানোর অপরাধে টিভি চ্যানেলকে জরিমানাজোড়া লাগছে তাহসান-মিথিলার সংসার!মাহমুদউল্লাহদের ১৯৩ রানের টার্গেট দিলেন সাকিবরাবড় সংগ্রহের পথে ঢাকাজাজাইয়ের ব্যাক টু ব্যাক ঝড়ো ফিফটি, উড়ছে ঢাকাঢাকা বনাম খুলনার খেলা দেখুন সরাসরিটসে সাকিবকে হারালেন মাহমুদউল্লাহডিআরএস নিয়ে প্রশ্নঘুরে দাঁড়ানোর আশায় সিলেটস্থানীয় তরুণদের ওপর চোখ নির্বাচকদেরগেইল মাঠে নামছেন আজ

কুমিল্লায় মৌসুমী ফলের সমারোহ # আসছে ভারত থেকেও

স্টাফ রিপোর্টার।। কুমিল্লা মহানগরীসহ জেলার সর্বত্র এখন মৌসুমী ফলের সমারোহ।দেশী ফলের পাশাপশি আসছে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের ফলও।
নগরীর হাটবাজার ও পথের মোড়ে মোড়ে মৌসুমি ফলের ছড়াছড়ি। নানা ফলের পসরা সাজানো আছে পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের দোকানে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ফল বিক্রি হচ্ছে দেদারসে। রমজান মাস উপলক্ষে এমনিতেই ফলের কদর বেশি। জ্যৈষ্ঠের শুরু হয়েছে। এবার গরমও পড়েছে বেশি। পুরো নগরীতেই মাসের প্রথম দিনেই দেখা মেলে বাহারি ফলের সুবাতাস।
রোববার দুপুরে কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড়,চকবাজার, বাদশা মিয়ার বাজার, টমছমব্রিজ, রাজগঞ্জ, নিউমার্কেট ও রানীরবাজার এবং আশপাশের কয়েকটি সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, সড়কের মধ্যে লিচু, কাঁঠাল, আম, বেল, পেঁপে, বা্িঙ্গ, কলা, তালের লেপা, ডাব, পেয়ারা, তরমুজ, আনারস, জামরুল নিয়ে বসে আছেন দোকানিরা। ১০০টি লিচু বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়। প্রতিটি কাঁঠাল বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকায়। বেল আকারভেদে হালি ২০০ থেকে ২২০ টাকা, আমের কেজি ১৫০ টাকা, পেঁপে আকারভেদে দরদাম হচ্ছে। কোনটি ১৫০ টাকা ও কোনটি ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তালের লেপা ২০ থেকে ৩০ টাকা করে একটি বিক্রি হচ্ছে। ডাব ৫০ থেকে ৬০ টাকা দরে প্রতিটি বিক্রি হচ্ছে। নগরের টমছমব্রিজ এলাকায় সবুজ রঙের তরমুজ কেজি প্রতি হাঁকানো হয় ১০০ টাকা করে। ১ হাজার ৫০০ টাকা দিয়ে ১৫ কেজি ওজনের একটি তরমুজ কিনতে দেখা গেছে এক ক্রেতাকে। ছোট সাইজের আনারসের হালি ১২০ টাকা।
নগরের দ্বিতীয় কান্দিরপাড় এলাকার বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন বলেন, লিচু বাজারে নামলেও দাম বেশি, একটু টকও। আরও কয়েক দিন পরে বাজারে ভালো লিচু মিলবে। সাড়ে ৪০০ টাকা দিয়ে ১০০টি লিচু কিনেছে।
রেসকোর্স এলাকার নাজমুল হাসান বলেন, গরমে ডাবের দামও বেড়ে গেছে। একটি ডাব ৬০ টাকা দিয়ে কিনতে হচ্ছে।
কান্দিরপাড় এলাকার ডাব বিক্রেতা আবদুল আলিম বলেন, ‘নোয়াখালীর ডাবের কদর বেশি। পরিবহন ব্যয় ও ডাবের দাম বেশি হওয়ার কারণে আমাদেরও বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।’
সচেতন নাগরিক কমিটি কুমিল্লার সাবেক সভাপতি ও জেলা দোকান মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব শাহ মো. আলমগীর খান বলেন, গরমে ফল পাকে। এই সময় ফলের মৌসুমও। বাজারেও বিভিন্ন গলিতে ফল নিয়ে বসে থাকেন বিক্রেতারা। চাহিদাও বেশি। পুরো জৈষ্ঠ্য মাসে থাকবে ফল কেনাবেচার কারবার।
কুমিল্লার ইতিহাসবিদ আহসানুল কবীর বলেন, ‘ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য থেকে কাঁঠাল, বেল, আনারস আসছে। দেশীয় ফলও রয়েছে। ইফতারের মেন্যুতে এখন আগের চেয়ে ফলের সংখ্যা বেশি থাকে। মানুষ ভাজাপোড়া বাদ দিয়ে ফলের দিকে বেশি নজর দিচ্ছে। জ্যৈষ্ঠ মাসে স্বজনদের বাড়িতে ফল পাঠানো হয়। এ সময় পাকা আম-কাঁঠাল, খই, মুড়ি ও দই দিয়ে অতিথিকে আপ্যায়ন করা হয়। এটা আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির অংশ।’
বিক্রেতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে,এখনো বাজারে রাজশাহীর আম তেমন উঠেনি।উত্তর বঙ্গের আম বাজারে উঠলেই আমের বাজার জমে উঠবে। আর আগামী সপ্তাহ থেকে বাজারে মৌসুমী ফলের সংখ্যা আরো বাড়বে বলে তারা জানান।
কান্দিরপারের ফল বিক্রেতা আসাদ,আলমগীর ও করিম ব্যাপারী জানান,বর্তমানে আম লিচু ও কাঠালের দাম কিছুটা বেশী হলেও আগামী সপ্তাহ থেকে এর দাম কিছুটা কমবে বলে তারা জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *