বৃহস্পতিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
রিফাত হত্যায় ৯ জনের বিরুদ্ধে পরোয়ানামিন্নি আদালতে আসলেন বাবার মোটরসাইকেলে করেছাত্রদলের সভাপতি খোকন, সম্পাদক শ্যামলছিঁচকে চুরি, সাগর চুরি আর পিনাটতত্ত্বএকান্ত সাক্ষাৎকার আধুনিক পৌরসভা গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়রহাজীগঞ্জে আমড়া খাওয়ার জন্য প্রাণ দিল আরফাকুমিল্লায় স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামী-শ্বশুর গ্রেফতারবরুড়ায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণসভা‘বাংলাদেশের শত্রু বাংলাদেশই’সাকিবদের সামনে আফগান চ্যালেঞ্জআফগানিস্তান ম্যাচের আগে হঠাৎ দলে আবু হায়দারপ্রবাসীদের লাশ টাকার অভাবে বিদেশে পড়ে থাকবে না, লাশ আসবে সরকারি খরচে: অর্থমন্ত্রীকুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন- আয়তন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ৭ বছর ধরে ঝুলে আছে মন্ত্রনালয়েধর্ষণদৃশ্য দেখানোর অপরাধে টিভি চ্যানেলকে জরিমানাজোড়া লাগছে তাহসান-মিথিলার সংসার!মাহমুদউল্লাহদের ১৯৩ রানের টার্গেট দিলেন সাকিবরাবড় সংগ্রহের পথে ঢাকাজাজাইয়ের ব্যাক টু ব্যাক ঝড়ো ফিফটি, উড়ছে ঢাকাঢাকা বনাম খুলনার খেলা দেখুন সরাসরিটসে সাকিবকে হারালেন মাহমুদউল্লাহ

নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন হোক ঈদযাত্রা

 
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-০৩ ৫:২৫:৩৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-০৩ ৫:২৫:৩৪ পিএম
 

ঈদে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গের আনন্দ ভাগাভাগি করতে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন রাজধানীবাসী। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৫ অথবা ৬ জুন উদযাপিত হবে ঈদুল ফিতর। এই ঈদকে সামনে রেখে রাজধানী ফাঁকা হতে শুরু করেছে। জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে রাজধানীতে থাকলেও স্বজনদের সঙ্গে ঈদ পালনের জন্য নগরবাসীর ঢাকা ছাড়া শুরু হয়েছে কয়েকদিন আগেই।

ঈদে স্বজনদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে বাস, ট্রেন বা লঞ্চের টিকিট সংগ্রহ থেকে শুরু করে বাড়ি পৌঁছানো পর্যন্ত নানা ঝক্কি পোহাতে হয় মানুষকে। তবুও নিজের গ্রামে যেখানে রয়েছে নাড়ির টান সেখানে ঈদ উদযাপনে উদগ্রীব মানুষ। পথের ভোগান্তি ও দুর্ভোগ নিমিষেই উবে যায় স্বজনদের দেখা মিললে।

প্রতি বছর ঈদের ছুটিতে ব্যাপকসংখ্যক লোক ঢাকা ত্যাগ করে থাকেন। এ বছরও তার ব্যতয় ঘটছে না। এবার সড়ক ও নৌপথে যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার কারণে যাত্রীদের কাছ থেকে অন্যান্য বছরের তুলনায় অভিযোগ কম। সড়কে যানজট অন্যান্য বারের তুলনায় কম। এদিকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির ক্ষেত্রে এ বছর তুলনামূলক সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা থাকলেও চাহিদার তুলনায় সীমিত আসন থাকায় অনেককে হতাশ হতে হয়েছে। বিঘ্ন ঘটছে ট্রেনের শিডিউলের ক্ষেত্রেও। বিভিন্ন গন্তব্যে ট্রেনের শিডিউল ঠিক না থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে ঘরমুখী মানুষকে।

ঈদ উপলক্ষে বাড়ি-ঘরে ফেরার ক্ষেত্রে আরেকটি বিড়ম্বনা সড়ক দুর্ঘটনা। দেশে এমনিতেই সড়কপথে দুর্ঘটনার হার বেশি। ঈদ উপলক্ষে সড়কে বাড়তি যানবাহন চলাচল করায় দুর্ঘটনার আশংকা আরও বেড়ে যায়। গত কয়েকদিনে বেশ কয়েকটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। ২ জুন রোববার বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ২২ জন। এর মধ্যে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ৯ জন এবং সুনামগঞ্জে ৭ জন নিহত হয়েছে।

সুতরাং এ ব্যাপারে যানবাহনের চালকসহ সংশ্লিষ্ট সবেইকে বিশেষ সতর্ক থাকা প্রয়োজন। ট্রেন এবং লঞ্চের যাত্রীরাও যেন নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছতে পারেন সে বিষয়ে নজর দিতে হবে। নৌ পথে দুর্ঘটনা এড়াতে ফিটনেসবিহীন লঞ্চ যাতে চলাচল করতে না পারে সে দিকে নজর এবং অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন রোধে কর্তৃপক্ষকে বিশেষ ব্যবস্থা নিতে হবে । এ ব্যাপারে যাত্রী সাধারণেরও সচেতনতা প্রয়োজন। ঈদ উপলক্ষে ঘরমুখো প্রত্যেক মানুষের যাত্রা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন হোক এ প্রত্যাশা আমাদের।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *