অনাবৃষ্টির প্রভাব খুলনার মাছ ও সবজির বাজারে

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

গত দু’মাস ধরে খুলনার বাজারে চোখ রাঙাতে থাকা কাঁচামরিচ, মুরগি ও ডিমের দাম কমলেও সবজির বাজারে কোনো সুখবর নেই। বৃষ্টি না থাকায় সবজির উৎপাদন একেবারেই কমে গেছে। উৎপাদন কমে যাওয়ায় বাজারে সরবরাহ অর্ধেকে নেমে এসেছে। ফলে সবজির দাম ক্রমাগতভাবে বেড়ে চলেছে।

খুলনার মাছের বাজারেও যেন আগুন লেগেছে। পানির অভাবে খালবিল শুকিয়ে যাওয়ায় মাছের আমদানিও কমে গেছে।

খুলনার টুটপাড়া জোড়াকল বাজারের সবজি বিক্রেতা রানা, রবিউল ও হোসেন বলেন, বাজারে এখন সবচেয়ে দামি সবজি বেগুন। এক কেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। লাউ ৪০-৫০ টাকা, কুমড়া ৩৫ টাকা, ঢেঁড়স ৩০ টাকা, ওল ৫০ টাকা, উচ্ছে ৪০ টাকা, আলু ২৮ টাকা, পটল ৩০ টাকা, ঝিঙে ৫০ টাকা, কুশি ৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

শনিবার নগরীর পিটিআই মোড়ের কাঁচামাল বিক্রেতা রেজাউল করিম বলেন, বাজারে সবজির সরবরাহ এতো কমে গেছে যে, দাম দিয়েও তা মিলছে না।

জোড়াকল বাজারের মুরগি বিক্রেতা লিপু, বাবু, মনির বলেন, ব্রয়লার মুরগির দাম কমে যাওয়ায় অন্যান্য মুরগির দামও একটু কমেছে।

মাছের দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে তারা বলেন, খালবিলে পানি নেই, সুন্দরবনের কোনো মাছ এখনও আসেনি। ফলে মাছের দাম কমছে না।

ভোক্তা অধিকার দপ্তরের উপপরিচালক শিকদার শাহিনুর আলম বলেন, ভোক্তা অধিদপ্তরের উদ্যোগে খুলনার বাজারগুলোতে সব সময় অভিযান চালানো হচ্ছে।

তিনি বলেন, অসাধু ব্যবসায়ীদের কারণে কিছুদিন বাজার অস্থির হয়েছিল। এখন তা নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কোথাও অনিয়মের খবর পেলেই সেখানে অভিযান চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।