কুমিল্লার ১১টি আসনের মধ্যে ৫টি আসনে বর্তমান এমপিদের ভাগ্য বিপর্যয় ঘটতে পারে !

শাহাজাদা এমরান ।।
প্রকাশ: ৫ মাস আগে

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ সময় ৩০ নভেম্বর। সেই হিসেবে আর মাত্র ৭ দিন হাতে আছে। ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে দেশের অন্যতম রাজনৈতিক দল ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নপত্র বিক্রি ও জমাদান।আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী তালিকা চুড়ান্ত হবে বলে জানা গেছে।
কুমিল্লা জেলার ১১টি সংসদীয় আসনের মধ্যে বর্তমানে সব কয়টি আসনেই এমপি হিসেবে রয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের সদস্যরা। এবার কি পূর্বের ১১জনই মনোনয়ন পাবেন না-কি কোথাও কোথাও পরিবর্তন হয়ে নতুন প্রার্থী আসবে এ নিয়ে জেলা জুড়ে জল্পনা কল্পনা চলছে। ডালপালা ছড়াচ্ছে গুজবেরও। প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর সমর্থকরা একজন আরেকজনকে ঘায়েল করার জন্য চালাচ্ছে নানা অপপ্রচারও।
এ নিয়ে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী সদস্য ও দলের বিভাগীয় বেশ কয়েকজন দায়িত্বশীল নেতার সাথে গত দুই দিন কথা বলেছেন দৈনিক আমাদের কুমিল্লা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল কুমিল্লার জমিন। কুমিল্লার ১১টি সংসদীয় আসনের বর্তমানে যারা এমপি হিসেবে আছেন তারা এবার সবাই থাকবেন না-কি কোন কোন আসনে পরিবর্তন হতে পারে এ বিষয়ে জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট কোন নেতাই প্রথমে মুখ খুলতে চাননি। সবারই একটা কমন কথা যে, কে মনোনয়ন পাবে আর কে পাবে না এটা একমাত্র মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া কেউ বলতে পারবে না । এমনকি কারো বলার সাহসও নেই। আবার কোন কোন নেতা নিজেই প্রার্থী হিসেবে দৌঁড়ের উপর আছেন বলে এই প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।
তবে নাম প্রকাশ না করার কঠোর শর্তে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র শতভাগ নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, কুমিল্লার বর্তমান যে ১১জন এমপি রয়েছে তারা সবাই মনোনয়ন পাবেন না। এর মধ্যে বেশ কয়েকজনের ভাগ্য বিপর্যয় ঘটতে পারে বলে জানিয়েছেন সূত্র। এর মধ্যে ২/১ জন হেভিওয়েট প্রার্থীও রয়েছেন।
সূত্র আরো জানান, কুমিল্লা জেলার ২ থেকে ৫ জন বর্তমান এমপির ভাগ্য বিপর্যয় ঘটিয়ে এখানে নতুন মুখ দেখা যেতে পারে। এর মধ্যে কুমিল্লা উত্তর জেলা থেকে কমপক্ষে ২টি আসনে আর দক্ষিণ জেলা থেকে ৩টি আসনে নতুন কাউকে দেখা গেলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না বলে জানিয়েছেন তারা।
আরেকটি সূত্র জানিয়েছেন, একাদশ নির্বাচনে যেমন নড়াইল ১ আসনে ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তোজা ছিলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিজস্ব প্রার্থী ঠিক কুমিল্লা দক্ষিন জেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ আসনেও যদি তেমনি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিজস্ব কোন প্রার্থী চলে আসেন তাহলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক বিভিন্ন সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, আওয়ামীলীগ অনেক আগে থেকেই কুমিল্লাসহ সারাদেশের তিনশ আসনেই একাধিক প্রার্থী সেট করে রেখেছে। দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি নির্বাচনে গেলে প্রার্থী তালিকা করে রেখেছে এক রকম, আবার বিএনপি না গেলে প্রার্থী তালিকায় কিছুটা পরিবর্তন,পরিমার্জন হতে পারে। এই পরিমার্জনে কিছু পরীক্ষিত আসনের বর্তমান সংসদ সদস্যদেরও কপাল পুড়তে পারে। হয়তো যা থেকে বাদ পড়বে না কুমিল্লা জেলার কয়েকটি আসনও।
এদিকে, কুমিল্লার বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক জানিয়েছেন, কুমিল্লার একটি হেভিওয়েট আসনসহ এমন বেশ কয়েকটি আসন রয়েছে যেই আসন গুলোর বর্তমান সংসদ সদস্যরা গত ৫ বছরে নিজ নির্বাচনী এলাকায় তেমন একটা সময় দেননি। আবার কারো কারো বিরুদ্ধে রয়েছে নানা ধরনের অভিযোগও।
নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে এই রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকগণ বলেছেন, আপাতত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে নির্বাচনে বিএনপি আসছে না। সরকার হয়তো কিংস পার্টি কিংবা যেনতেন প্রার্থী দাঁড় করিয়ে নির্বাচনটা করে নিবে। যদি তাই হয়, তাহলে প্রধান মন্ত্রী যেন, কুমিল্লার ১১টি বর্তমান এমপির মধ্যে যারা বিভিন্ন ভাবে বিতর্কিত,পেশী শক্তির বলে বলিয়ান তাদেরকে যেন এবার মনোনয়ন না দেন। কারা বিতর্কিত জানতে চাইলে তারা জানান, এটা আমাদের বলা দরকার নেই, দল এবং সরকার ওয়াকিবহাল।