কুমিল্লায় যুবক গুলিবিদ্ধের ঘটনায় বিএসএফের সাথে পতাকা বৈঠক; বিজিবির প্রতিবাদ

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লার বুড়িচং সীমান্তে ঘাস কাটতে গিয়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে জালাল হোসেন (২৮) নামের এক যুবক আহতের ঘটনায় বিএসএফের সাথে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে ৫ টায় ভারত বাংলাদেশ সীমান্তের বুড়িচং উপজেলার জামতলা এলাকার সীমান্ত পিলার ২০৬৫ / ৭ এর কাছে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

৬০ বিজিবির আওতাধীন শংকুচাইল বিওপির নায়েব সুবেদার মনিরুজ্জামান পতাকা বৈঠকে বিষয়টি আজকের পত্রিকাকে নিশ্চিত করে বলেন, সীমান্তে গুলির ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়। পাশাপাশি ভবিষ্যতে শূন্যরেখায় যেন কোন ধরনের গুলির ঘটনা না ঘটে এ বিষয়ে বলা হয়।

পতাকা বৈঠকে ভারতের কলমচুরা বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বিষয়টি নিয়ে বিজিবি আরো তদন্ত করবে বলে জানান নায়েব সুবেদার মনিরুজ্জামান।

উল্লেখ্য, বুধবার বিকেলে বুড়িচং উপজেলার বাকশীমূল ইউনিয়নের জামতলা এলাকায় সীমান্তের শূন্যরেখায় জালাল মিয়া নামে এক যুবককে গুলি করে বিএসএফ।

জালাল ধান কাটা শেষে বিকেলে গরুর জন্য ঘাস কাটতে গিয়ে সীমান্তের শূন্যরেখায় প্রবেশ করে ফেলেন। বিষয়টি বুঝতে পেরে জালাল চলে আসার সময় পেছন থেকে বিএসএফের সদস্যরা গুলি করেন। এতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় জালাল দৌড়ে লোকালয়ে প্রবেশ করলে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

জালাল বর্তমানে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তিনি বাকশীমূল ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী কোদালীয়া গ্রামের মৃত বাদশা মিয়ার ছেলে। জালাল শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন।