কুমিল্লায় স্বামীর সাথে মিলে পরকীয়া প্রেমিককে হত্যা : গ্রেফতার ২

রহস্য উদঘাটন-
চান্দিনা প্রতিনিধি ।।
প্রকাশ: ৮ মাস আগে

কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলায় ছাড়াগাও এলাকা স্বামীর সাথে মিলে পরকীয়া প্রেমিককে হত্যা করে প্রেমিকা ও তার স্বামী। এ ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ঘাতক স্বামী শুক্কুর আলী ও স্ত্রী ফাতেমা আকতারকে গ্রেফতার করেছে চান্দিনা থানা পুলিশ।
শুক্রবার (১১ আগষ্ট) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি এসব তথ্য জানান কুমিল্লা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ নাজমুল হাসান। নিহত আরিফ হোসেন (৪০) সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক থানার সাতগাঁও এলাকার আলাই মিয়ার ছেলে।
নাজমুল হাসান বলেন, দুই বছর ধরে শুক্কুর আলীর সাথে রাজমিস্ত্রীর কাজ করতো আরিফ হোসেন। সেই সুবাদে শুক্কুর আলীর বাড়িতে আরিফের আসা যাওয়া ছিলো। এ থেকে শুক্কুর আলীর স্ত্রী ফাতেমা বেগম (২৮) এর সাথে আরিফের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক সৃষ্টি হয় ।
পরবর্তীতে, ফাতেমা আরিফের বাসায় চলে আসে। কিন্তু, এক পর্যায়ে ফাতেমা বুঝতে পারে আরিফ তাকে বিয়ে করবে না। পরে ফাতেমা আবারো তার স্বামীর কাছে ফিরে আসে।
প্রেমে প্রতারণার শিকার হাওয়া অভিমানে ফাতেমা তার স্বামীর সঙ্গে মিলে আরিফকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরে কৌশলে শুক্কুর আলী ও ফাতেমা বেগম মিলে আরিফকে শাবল দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে। লাশ বস্তাবন্দি করে পুকুরে ফেলে দেয়।
গ্রেফতারকৃত আসামী শুক্কুর হোসেন সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ছত্রিশ কালিপুর গ্রামের মৃত আবদুল গফুরের ছেলে, আসামী ফাতেমা বেগমের বাড়িও একই থানার গাবুরগাঁও এলাকায়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই তারিছস বৃহস্পতিবার রাতে তারিছ আলী বাদী হয়ে চান্দিনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।
প্রেস বিফ্রিং উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দাউদকান্দি সার্কেল) এনায়েত কবির সোহায়েব,চান্দিনা ওসি মোহাম্মাদ শাহাবুদ্দিন খান।
উল্লেখ্য গত বধুবার (৯ আগস্ট) কুমিল্লার চান্দিনার উপজেলার ছাড়াগাও এলাকার পুকুর থেকে অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।