কুরআনে হাফেজ আনসারী আর নেই

দেশে-বিদেশ,শিক্ষানুরাগী ও রাজনৈতিক দলের শোক প্রকাশ
সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লার কৃতি সন্তান ও বগৈড় মাদীনাতুল উলূম রুহানিয়া মাদরাসার পরিচালক হাফেজ মাওলানা আইয়ুব আনসারী আর নেই।
শনিবার রাজধানীর একটি হাসপতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্না ইলাইহে রাজেউন।মৃত্যুকাল তার বয়স ৩৩ ছিল।
এই কুরআনে হাফেজ ও মাওলানা আনসারীর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন তার বড় ভাই বাংলাদেশ পুলিশে কর্মরত মোহাম্মদ মোজাম্মেল। পরিবারের তরফ থেকে বলা হয় রবিবার ৯টায় বগৈড় মাস্টার বাড়িতে জানাযার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
এর আগে তিনি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দীর্ঘদিন চিকিৎসারত ছিলেন। উন্নত চিকিৎসা ও অপারেশনের জন্য ঢাকায় নেওয়া হয়।
বরেণ্য এই কুরআনের হাফেজ ও মাওলানা আইয়ুব আনছারীর জন্ম কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বগৈড় এলাকায়। তিনি কুমিল্লা নগরীর সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান রানীর বাজার জামিয়া রশীদিয়া আজিজুল উলূম মাদরাসা হতে খুব সুনামের সাথে অল্প বয়সে হিফজ শেষ করে, চরমোনাই আহসানাবাদ রশীদিয়া কামিল মাদরাসা হতে কামিল শেষ করেন। এরপর কুমিল্লা ইসলামিয়া আলিয়া কামিল মাদরাসা হতে ডাবল এমএ ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ঢাকা যাত্রাবাড়ী জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলূম মাদানিয়া মাদরাসা হতে দাওরায়ে হাদীসও শেষ করেন।
তিনি  বিভিন্ন সরকারি চাকুরি ও অনেক প্রতিষ্ঠানে চাকুরির অফার পেলেও তিনি নিজ এলাকার মানুষদের কথা ভেবে এলাকায় গড়ে তুলেন মাদীনাতুল উলূম রুহানিয়া মাদরাসা। মৃত্যুর পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত এই মাদরাসার পরিচালনায় সুনামের সাথে খেদমত করে গেছেন। ওনি চরমোনাই পীর মরহুম সৈয়দ ফজলুল করীম রহ. এর রাজনৈতিক মতাদর্শের অনুরাগী ছিলেন। ওনার মৃত্যুতে দেশ-বিদেশের শিক্ষানুরাগীরা ও বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিগন শোক প্রকাশ করেন।