কুসিক নির্বাচন – কথার লড়াইয়ে উত্তপ্ত কুমিল্লা সিটি নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৬ মাস আগে

মারামারি-কাটাকাটির সংঘাত কম হলেও কথার লড়াইয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে আসন্ন কুমিল্লা সিটি নির্বাচনের প্রচারণা উৎসব। বেগমপাড়া, রূপায়নটাওয়ার, চাঁদের দেশের সাথে কুমিল্লার সদর আসনের সংসদ সদস্য নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা উত্তেজনার পারদ ঢেলে দিয়েছে। কুমিল্লার মানুষ জমজমাট কথার লড়াই উপভোগ করছেন। কথার লড়াইকে ঘিরে কেউ আবার ভয়েও আছেন।
সংসদ সদস্য নির্বাচনী আইন ভঙ্গ করছেন- সাক্কু
কুমিল্লার সদর আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচনী আইন ভঙ্গ করছেন বলে অভিযোগ করেন সাবেক মেয়র ও টেবিল ঘড়ি নিয়ে নির্বাচন করা স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু। তিনি গতকাল মঙ্গলবার কুমিল্লা জজকোর্টে আইনজীবী সমিতির সদস্যদের সাথে প্রচারণা শেষে সাংবাদিকের এ কথ াবলেন।
মনিরুল হক সাক্কু আরো বলেন, আমার কাছে প্রমাণ আছে তিনি (সংসদ সদস্য) আইন ভঙ্গ করছেন। তিনি গতকালও অন্য একটি কথা বলে সাংবাদিকদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। ওই সভায় কি কথা হয়েছে তা সকলেরই জানা আছে। আমি এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি, তিনি কি ব্যবস্থা নেয় দেখি।
রূপায়ন টাওয়ারের নকশা অনুমোদনে ৮০ লাখ টাকা নেয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যে ব্যক্তি টাকা দিয়েছে সে কোথায়। যিনি টাকা দিয়েছে তার যদি কোন অভিযোগ থাকে তারা আদালতে প্রমাণ দিয়ে অভিযোগ দেয় না কেন।
তিনি আরো বলেন, যিনি টাকা দিয়েছেন উনার জ¦লেনা, যারা দেননি তাদের এতো জ¦লে কেন ? প্রমাণ ছাড়া পৃথিবীর কিছুই চলে না। তাদের কাছে প্রমাণ থাকলে দেখাক, দেশে আইন আদালতসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা আছে, তাদের কাছে প্রমাণ দেয়না কেন?
কানাডায় বাড়ির বিষয়ে সাক্ক ুবলেন, বৈধ টাকা থাকলে চাঁদের দেশেও বাড়ি কেনা যায়।কিন্তু আমার বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ মিথ্যা। কারণ আমি কখনে াকানাডায় যাইনি।আমার সুযোগ থাকে বিভিন্ন দেশে যাওয়ার, কিন্ত আমি সেখানে যাই না।
এমপি নেতাকর্মীদের নিয়ে মিটিং করতেই পারেন- রিফাত
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের মনোনীত প্রার্থ ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত বলেছেন,আ.ক.ম বাহা উদ্দিন বাহার এমপি মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি। আওয়ামীলীগের বিভিন্ন কর্মসূচির বিষয়ে তিনি সিদ্ধান্ত নেন। আওয়ামীলীগের কর্মীদের সাথে তিনি মিটিং করতেই পারেন। এতে অন্যয়ের কিছুআমি দেখিনা। বিকেলে মুরাদপুর চৌমুহনীতে এক গণসংযোগ অনুষ্ঠানে রিফাত আরো বলেন, আমি সাক্কুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ করে দেব। টাউনহলে তার দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে।
তিনি বলেন, তার (সাক্কুর) স্ত্রীর কানাডার বেগমপাড়ায় জায়গা আছে। নইলে তার স্ত্রী কোথায় থাকে? ও (সাক্কু)আগামীকাল আসুক, তিন মাস কেন, আগামীকালই বলে দেব তাদের কানাডা কোথায় বাড়ি আছে।
তিনি (রিফাত) জনগণের কাছে যান না, সাক্কুর এমন একটি কথা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে রিফাত বলেন, আমি যদি মানুষের কাছে না যাই, এরা কারা ? তখন নৌকার পক্ষে উপস্থিত কর্মীরা স্লোগানদিতে থাকেন।
নির্বাচিত হলে শপথ গ্রহণের পূর্বে ইপিজিডের বর্জ্য সমস্য সমাধান করব- কায়সার
কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি ও ঘোড়া প্রতীত নিয়ে নির্বাচন করা স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেছেন, নির্বাচিত হলে শপথ গ্রহণের পূর্বে সিটি করপোরেশনের দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের সমস্যা ইপিজেডের বর্জ্য সমস্য সমাধান করব। মঙ্গলবার সকালে নগরীর ২২ নম্বর ওয়ার্ডের দৈয়ারা এলাকায় গণসংযোগকালে তিনি এ কথাবলেন।
তিনি আরো বলেন, গত ১০ বছর কুমিল্লা সিটি করপোরেশনকে একটি অকার্যকর সিটিতে রূপান্তরিত করে রাখা হয়েছে। সদর দক্ষিণ উপজেলার ৯ টিওয়ার্ডে উন্নয়নের বিন্দুমাত্র ছোঁয়া লাগেনি। দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ আজ মানবেতর জীবন যাপন করছে। ইপিজেডের রাসায়নিক বর্জ্যরে ফলে খালের মাছ মরে গেছে, নষ্ট হয়ে গেছে জমির ফসল। অতীতে যারা সিটির দায়িত্বে ছিল তারা ইপিজেডের সাথে আঁতাত করে অপরিশোধিত পানি-বর্জ্য খালের মধ্যে ছেড়ে দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমি এখন পর্যন্ত যে পরিবেশ দেখছি, যদি এই পরিবেশ অব্যাহত থাকে তাহলে আল্লাহর রহমতে ঘোড়া বিপুল ভোটে জয় লাভ করবে।