“ তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ প্রয়োগে নাগরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি” শীর্ষক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত

কুমিল্লা কৃষি ও কারিগরি কলেজ এর শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে
স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৪ মাস আগে

 

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) এর কমিউনিটি মবিলাইজেশন এর আওতায় কুমিল্লা কৃষি ও কারিগরি কলেজেল শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে “তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ প্রয়োগে নাগরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি” শীর্ষক ক্যাম্পেইন গতকাল কলেজের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সনাক কুমিল্লার সহ সভাপতি অধ্যাপক নিখিল চন্দ্র রায় এর সভাপতিত্বে ও এরিয়া কো-অর্ডিনেটর প্রবীর কুমার দত্তের সঞ্চালনায় এই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোমেন শর্মা। অনুষ্ঠানে শুরুতে সনাক কুমিল্লার স্বাস্থ্য বিষয়ক উপকমিটির আহবায়ক ও টিআইবি’র পর্ষদ সদস্য বদরুল হুদা জেনু “টিআই, টিআইবি, দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলন” ও তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের মাঝে সংক্ষিপ্তভাবে আলোচনা করেন। এছাড়াও তিনি বলেন, তথ্য অধিকার আইনের প্রায়োগিক দিক বৃদ্ধির মাধ্যমে কলেজের প্রতিটি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা সম্ভব। ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি দুর্নীতিকে সামাজিক ব্যাধি হিসেবে চিহ্নিত করে বলেন, অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিতের মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক অনিয়ম ও দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব। তিনি সকলকে নিজ নিজ ক্ষেত্রে স্বকীয়তা বজায় রাখার পাশাপাশি দ্বিচারিতা না করার আহবান জানান। সকল পর্যায়ে তথ্য অধিকার আইনের চর্চার জন্য নাগরিক সচেতনতায় টিআইবি’র উদ্যোগকে স্বাগত জানান। তিনি জানান, আদর্শ সদর উপজেলা কর্তৃপক্ষ অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ^াসী। তিনি সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দুর্নীতি বিরুদ্ধে কাজ করার আহবান জানান।

 

সমাপনী বক্তব্যে সনাক সহ সভাপতি অধ্যাপক নিখিল চন্দ্র রায় বলেন শিক্ষার্থীদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং সমাজে দুর্নীতি প্রতিরোধে অগ্রনী ভূমিকা পালনের আহবান জানিয়ে বলেন, সুশাসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিমূলক দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার যে লক্ষ্যে টিআইবি-সনাক কাজ করছে আগামী দিনে তরুণরাই হবে সেই সমৃদ্ধ বাংলাদেশের কর্ণধার। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সনাক সদস্য আলহাজ¦ শাহ্ মো: আলগীর খান, কুমিল্লা কৃষি ও কারিগরি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও সনাক সদস্য মোহাম্মদ আনিছুর রহমান আখন্দ, কলেজের অধ্যক্ষ পরমানন্দ গোস্বামী। অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষকবৃন্দ, ইয়েস গ্রুপের সদস্য ও বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। পরিশেষে সনাক সদস্য অধ্যাপক বিজয় কৃষ্ণ রায় এর পরিচালনায় ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের দুর্নীতিবিরোধী শপথ পাঠের মধ্য দিয়ে ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠানটি শেষ হয়।